মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু, নাইক্ষ্যংছড়ি:
পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা মানব কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের আমির হাজার ছেলে ১৯ বছরের যুবক জিন্নাত আলীর পালটে যাচ্ছে জীবন চিত্র। সাংবাদিকদের লেখনীর মাধ্যমে যখন সারাদেশ হৈ চৈ পড়ে টিক সেই মহুুর্তে কক্সবাজার-রামু সদর আসনের সাংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপির রামুর বাসভবনে নেন গর্জনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম ও কচ্ছপিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান আবু মোঃ ইসমাঈল নোমান। সে সময় থেকে এমপি কমল দীর্ঘ এ মানব জিন্নাত আলীর খোঁজ খবর নেন এবং আর্থিক সহযোগিতা করেন।

গত ২৪ অক্টোবর বিকাল ৫ টায় বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে এমপি কমলের মাধ্যমে সাক্ষাৎ এর সুযোগ হয় শরীরে নানা রোগে বাসা বেধেঁ থাকা পৃথিবীর দীর্ঘ মানব জিন্নাত আলীর। দরিদ্রতার কারনে খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছিল এ জিন্নাত। শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাতের পর জিন্নাত আলীর সুচিকিৎসার দায়িত্ব ,সাথে ৫ লাখ টাকা ও একটি বাড়ী নির্মান করে দেওয়ার ঘোষনা দেন প্রধানমন্ত্রী। এ ঘোষনার সাথে সাথে তৎপর হয়ে উঠেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন। ওনার নির্দেশে বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর) রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের পৃথিবীর দীর্ঘ এ মানব জিন্নাত আলীর গ্রামের বসতভিটা পরিদর্শন করেন।

এসময় জিন্নাত আলীর গর্ভধারিণী মা শাফুর বেগমকে জেলা প্রশাসক এর পক্ষ থেকে ইউএনও মোঃ লুৎফুর রহমান দশ হাজার টাকার একটি চেক প্রদান করেন

পরিদর্শন কালে সাথে থাকা গর্জনিয়া ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা মোঃ শাহেদ জানান, জেলা প্রশাসকের নির্দেশক্রমে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লুৎফর রহমানসহ উপজেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা গর্জনিয়াস্হ বড়বিল গ্রামের দীর্ঘ মানব জিন্নাত আলীর বসতভিটা পরিদর্শন করে ভিটার জমি পরিমাপ ও প্রয়োজনীয় তথ্য উপাত্ত সহ একটি প্রতিবেদন তৈরি করেন।

স্হানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন ধরে পৃথিবীর দীর্ঘতম যুবক গর্জনিয়া বড়বিলের জিন্নাত আলী তার গ্রামে অর্ধাহারে-অনাহারে বিনা চিকিৎসায় মানবেতর জীবনযাপন করে ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী সুচিকিৎসা, আর্থিক সহযোগিতা ও বাড়ী নির্মান করে দেওয়ার ঘোষনার পর কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ও রামু উপজেলা প্রশাসন বাড়ী নির্মানে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম দ্রুত শুরু করায় বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কে গর্জনিয়াবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ নজরুল ইসলাম জানান,পৃথিবীর দীর্ঘ মানুষটির সুচিকিৎসার দায়িত্ব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নেওয়ায় গর্জনিয়ার জনগন অত্যন্ত আনন্দিত।তিনি জিন্নাত আলীর পাশে প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি বিশ্ববাসী কে এগিয়ে এসে পৃথিবীর দীর্ঘ মানুষটি কে বাচিঁয়ে রাখার আহবান জানান।

রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লুৎফর রহমান জানান,কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের নির্দেশে রামু উপজেলা প্রশাসন সরেজমিন জিন্নাত আলীর বসত ভিটার কাগজপত্র সহ আনুসাঙ্গিক কাগজপত্রের ফাইল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে। তাই অতিশীঘ্রই শুরু হবে জিন্নাত আলীর বসতবাড়ি নির্মানের কাজ।

পরির্দশন কালে ইউএন ও ছাড়াও ছিলেন রামু উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তা জাকের হোসেন গর্জনিয়া ভুমি কর্মকর্তা মোঃ সাহেদ স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার নরুল ইসলাম প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •