হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী :
কক্সবাজার ইন্টরন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে বৃহস্পতিবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে সন্ত্রাস ও মাদকবিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইউনিভার্সিটি মিলনায়তনে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান আরম্ভ হয়। অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী ও উপস্থিত সবাইকে সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে শপথ বাক্য পাঠ করান সমাবেশের প্রধান অতিথি কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো.কামাল হোসেন।

ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাষ্টিজের চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন- কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাষ্টিজের সাধারণ সম্পাদক লায়ন মুজিবুর রহমান, ট্রেজারার আবদুল হামিদ, রেজিস্ট্রার নাজিম উদ্দিন সিদ্দিকী, জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক আব্দুল মালেক তালুকদার, জেলা জাসদের সভাপতি নাঈমুল হক চৌধুরী টুটুল ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেজাউল করিম। ইউনিভার্সিটির সহকারি রেজিস্ট্রার কুতুব উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজের ছাত্র বিভাগের ইয়াছির সুলতান এবং গীতা পাঠ করেন আইন বিভাগের ছাত্র সচিব কর্মকার তীলক।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো.কামাল হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাবা-ছেলে মিলে অপরাধ করেন এ ধরনের ঘটনা অন্য কোথাও নেই। কিন্তু এমন নজির কক্সবাজারের টেকনাফে রয়েছে। এই গন্ডি থেকে আমাদেরকে বেরিয়ে আসতে হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মাদক পাচার প্রতিরোধে তৎপর। কিন্তু সকলের সহযোগিতা ছাড়া মাদক পাচার বন্ধ সম্ভব নয়। এ বিষয়ে বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরকে অনেক বেশি ভূমিকা পালন করতে হবে। দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে সবাইকে ভালো কাজে এগিয়ে আাসতে হবে।

কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, সন্ত্রাস ও মাদকের বিষয়ে নিজেদেরকে সচেতন থাকতে হবে। ভবিষ্যত প্রজন্মকে রক্ষা করতে হলে মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। কারণ মাদক থেকেই সন্ত্রাসের জন্ম হয়। মনে রাখতে হবে আমাদের দেশেই মাদকের কারণে সন্তান কর্তৃক বাবা-মা খুন হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •