এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া:

চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নে প্রয়াত ভাইয়ের বসতভিটা দখলে ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার ভোররাতে ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের বিবিরখিল উত্তরপাড়া এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা। অগ্নিকা-ে বসতঘরটির সমুদয় মালামাল পুড়ে প্রায় ৫ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে দাবি করেছেন গৃহকর্ত্রী হোসনে আরা বেগম। চকরিয়া প্রেসক্লাবে এসে সাংবাদিকদের কাছে এ ধরণের অভিযোগ তুলেছেন আক্রান্ত পরিবারটির গৃহকর্ত্রী।

অভিযোগে ওই গ্রামের মৃত মোহাম্মদ বাবুলের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম জানান, তাঁর স্বামীর মৃত্যুর পর সন্তানদের নিয়ে নিজেদের বসতঘরে অতিকষ্টে বসবাস করে আসছেন। কিন্তু বিগত কয়েকমাস আগে থেকে তাঁর বাসুর (স্বামীর ভাই) মোহাম্মদ হোছন সওদাগর বিভিন্নভাবে প্রভাব দেখিয়ে বসতভিটার কিছু অংশের জায়গা দখলে নিতে চেষ্ঠা চালিয়ে আসছেন। এ ঘটনার জেরে স্বামীর অপরাপর ভাইয়েরা তাকে বাঁধাও দেন।

উল্টো এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাসুর হোছন সওদাগর বাদি হয়ে সাজানো অভিযোগ তুলে আদালতে একটি মামলা করেছেন। মামলায় গৃহকর্ত্রী হোসনে আরা বেগম ছাড়াও বাধাদানকারী অপরাপর ভাইদেরকেও আসামি করা হয়। মামলার পর আসামি হয়ে বর্তমানে এলাকা ছেঁেড় পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

হোসনে আরা বেগম অভিযোগ করেছেন, সাজানো মামলায় পরিবারের সবাই পালিয়ে থাকার সুযোগে সর্বশেষ মঙ্গলবার ভোররাতে হোছন সওদাগর ও তাঁর ছেলে সোহেল পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগিয়ে দেয় তাঁর (গৃহকর্ত্রী হোসনে আরা বেগম) বসতঘরে। আগুনে বসতঘরটি এবং সমুদয় মালামাল পুড়ে প্রায় ৫ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে দাবি করেছেন হোসনে আরা বেগম। এ ঘটনায় তিনি আইনের আশ্রয় নিচ্ছেন বলে ভুক্তভোগী গৃহকর্ত্রী।

চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বসতঘরে আগুন দেয়ার ঘটনায় সেই ধরণের কোন অভিযোগ থানায় করেনি। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •