ইমাম খাইর, সিবিএন:
চট্গ্রাম থেকে চকরিয়া ফেরার পথে গাড়ীর ভেতরেই অজ্ঞানপার্টির খপ্পরে পড়ে মুহাম্মদ মামুন (৪০) নামের সোহাগ পরিবহনের এক যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে।
২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম থেকে কর্মস্থল চকরিয়া ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত মামুন পেশায় সেনিটারী মেস্ত্রি।
তিনি বরগুনা জেলার পাথরঘাটা কাকরিয়া রূপগঞ্জ এলাকার আব্দুল মালেক হাওলাদারের ছেলে।বর্তমানে চকরিয়া পৌরসভার ফুলতলা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন।
মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় এই রিপোর্ট লিখাকালে মরদেহ কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে রয়েছে।
নিহত মামুনের বড় ভাই মুহাম্মদ হানিফ মুঠোফোনে সিবিএনকে বলেন, আমরা কাজের প্রয়োজনে চকরিয়া বাসা ভাড়ায় থাকি। সেনিটারী কাজ করি। মামুন মালামাল কিনতে চট্টগ্রাম গিয়েছিল। মালামাল ট্রান্সপোর্টে তুলে দিয়ে সোমবার বিকাল ৪টায় সোহাগ পরিবহনে করে চকরিয়া ফিরছিল।
তিনি বলেন, চকরিয়া অতিক্রম করেও গাড়ী থেকে না নামায় সুপারভাইজার সীটে গিয়ে দেখে মামুন অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে আছে। কক্সবাজার পৌছে রাত ১০টার দিকে গাড়ীর চালক-হেলপারসহ সবাই মিলে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।
এটি একটি দুর্ঘটনা বলে মনে করেন নিহতের বড় ভাই হানিফ। আইনী প্রক্রিয়া শেষে লাশ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •