cbn  

সিবিএনঃ
৫,০০০/=টাকার কাছে বিবেক ও দেশপ্রেম বিক্রি হচ্ছে খোদ কক্সবাজার জেলায়। আজ ২১/১০/২০১৮ এই কাংগাল বাংলাদেশী কুতুপালং রোহিংগা ক্যাম্প থেকে এই মেয়েকে টাকার বিনিময়ে পাসপোর্ট করে দিবে বলে নিজ পুত্রবধু সাজিয়ে এনেছে। বিষয়টাকে বিশ্বাসযোগ্য করতে সাথে এনেছেঃ
ক) শ্বশুরের NID
খ) শ্বাশুরীর NID
গ)বেয়াইয়ের NID
ঘ)বেয়াইনের NID
ঙ) ছেলের NID
আমি তো কিংকর্তব্যবিমূঢ় ! বুঝতে পারছি কিছু একটা ঝামেলা আছে কিন্তু কোথায়? প্রাথমিক তদন্ত করলাম কিন্তু নিজেই তুষ্ট হতে পারি নাই। ইদানীং মনে হয় এত জেরা করছি, ঠিক হচ্ছে কী? বেশী জেরার ফলে অনেক NID কার্ডধারী নারী পুরুষের আবেদন ও জব্দ করেছি। একটু শিথিল করি। অনুমোদন দিলাম।

উল্লেখ্য, প্রতিটি সহকর্মীদের বলা আছে তাদের নিজনিজ ডেস্কে তারা যেন তাদের মত করে তদন্ত করে। এতে করে একজনের নজর এড়িয়ে গেলেও অন্যজনের কাছে ঠিকই ধরা খাবে। হলো ও তাই। অফিস সহকারী সবুজ বড়ুয়ার নজর এড়ালো না। এবার শুরু হলো আখেরী জিজ্ঞাসাবাদ। দুইজনকে আলাদা প্রশ্নবাণ। অবশেষে থলের বিড়াল বেড়োল। মেয়ে কুতুপালং ক্যাম্প থেকে দালাল সহায়তায় বেড়িয়েছে। অনেক ট্রেইনিং দেয়া হয়েছে। শেষ রক্ষা হলো না।

মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে দেশী মীরজাফরকে ৪ মাস ও মেয়েকে ২ মাসের কারা দন্ড দেয়ার কাজ সম্পন্ন করলেন ভাতৃপ্রতীম ম্যাজিস্ট্রেট সেলিম শেখ।

মন্তব্যঃ এটা কি স্থায়ী কোন সমাধান ? তারা যে আবার চেষ্টা করবে না তার নিশ্চয়তা কি? তারাও জানে, একবার না পারিলে দেখ শতবার। প্রতিবার ই সে সফল হবো তাও তো সম্ভব না। তখন লোকে কি ভাববে তাই ভাবছি।

-কক্সবাজার আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক আবু নাঈম মাসুম এর টাইমলাইন থেকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •