cbn  

নিউজ ডেস্ক:
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোনো পর্যবেক্ষক পাঠাবে না ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পক্ষ থেকে ইইউকে চিঠি দিয়ে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠাতে অনুরোধ জানানো হয়। তার জবাবে ইইউ জানায়, তারা নির্বাচনে কোনো পর্যবেক্ষক পাঠাবে না। তবে নির্বাচনের আগে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নির্বাচনের প্রস্তুতি জানতে দুইজন নির্বাচন বিশেষজ্ঞ পাঠাবে সংস্থাটি।

অবশ্য ইইউ’র পর্যবেক্ষক না পাঠানোর বিষয়টিকে বড় করে দেখছে না ইসি। তারা জানিয়েছে, আইন ও বিধি মেনে দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষকদের তারা স্বাগত জানাবে। তবে তারা পর্যবেক্ষণ করতে আসার জন্য কাউকে প্রভাবিত করবে না কমিশন।

২০০৮ সালে ইইউ’র প্রায় ৮০০ সদস্যের পর্যবেক্ষক দল বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করে। তারা শুধু নির্বাচনের দিনই নয়, নির্বাচনের আগে ও পরে বেশ কিছুদিন বাংলাদেশে থেকে এই পর্যবেক্ষণের কাজ করেন। কিন্তু ২০১৪ সালে সংস্থাটির পক্ষ থেকে কেউ নির্বাচন পর্যবেক্ষণে বাংলাদেশে আসেননি। এবারও জাতীয় সংসদ নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ইইউ পর্যবেক্ষকরা আসবেন না বলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

ইইউ ব্রাসেলস কার্যালয় থেকে গত ২৭ সেপ্টেম্বর বেলজিয়ামে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে এক চিঠিতে (নোট ভারবাল) জানানো হয়েছে, ‘ইইউ বাংলাদেশের এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোনো পর্যবেক্ষণ মিশন নিয়োজিত করবে না। কিন্তু দুই সদস্যের একটি ইলেকশন এক্সপার্ট দল পাঠানো হবে। যারা নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে কাজ করবেন এবং রিকমেন্ডেশন দেবেন।’

নোট ভারবালে আরও লেখা হয়েছে, ‘এই দুজন বিশেষজ্ঞ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, সিভিল সোসাইটি, রাজনৈতিক দল, প্রার্থী, বিচার বিভাগ-এর সঙ্গে দেখা করতে চান। তারা চূড়ান্ত নিরপেক্ষতা বজায় রাখবেন এবং কোনো পাবলিক কমেন্ট করবেন না।’

বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ২০১৭ সালের ১৮ ডিসেম্বর এক চিঠিতে ইইউকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠানোর আমন্ত্রণ জানানোর জবাবে এই নোট ভারবাল ইস্যু করে ইউরোপের ২৮টি দেশের এই ইউনিয়ন।

এদিকে, ঢাকায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠক করেন। জানা গেছে, কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে নির্বাচন পর্যবেক্ষণে দল না পাঠানোর সিদ্ধান্তে ইইউ’র অবস্থানের কথা তুলে ধরেছেন তারা। সাক্ষাৎকালে ইইউ-এর পক্ষ থেকে আগে পাঠানো চিঠিও ইসিকে সরবরাহ করা হয়েছে।’

জানা গেছে, বৈঠকের সময়ও প্রধান নির্বাচন কমিশনার পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়টি তোলেন। তারা তাদের পর্যবেক্ষক না পাঠানোর আগের অবস্থানের কথাই জানান।

এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবার নির্বাচনে কোনো পর্যবেক্ষক দল পাঠাবে না বলে আমাদের জানিয়েছে। তারা কোনো কারণ জানায়নি। তবে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আলাদাভাবে পর্যবেক্ষক আসতে পারেন। আমার জানা মতে, ২০১৪ সালের নির্বাচনেও তারা পর্যবেক্ষক পাঠায়নি। তবে এবার তারা দুই সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ দল পাঠাচ্ছে। তারা নির্বাচন প্রক্রিয়া দেখে একটি প্রতিবেদন দেবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘অতীতে আসেনি। এবারও আসবে না। ফলে এর কোনো প্রভাব পড়ার কথা নয়।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •