cbn  

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, কক্সবাজার সদর:

সনাতন সম্প্রদায়ের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ ত্রান পুঁজার উপহার বঞ্চিত হয়েছে ঈদগাঁও ইউনিয়নের ২ গ্রামের প্রায় শতাধিক হত দরিদ্র। বঞ্চিত করার পেছনে একজন উপজেলা পুঁজা উদযাপন কমিটির নেতাকে দোষলেন ইউনিয়ন কমিটির নেতাকর্মী ও স্থানীয়রা। এ নিয়ে এলাকা সমূহের লোকজনের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, শারদীয় দুর্গা পুঁজা উপলক্ষে সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজার সদর উপজেলার ৪নং ঈদগাঁও ইউনিয়নের অস্বচ্ছল ২শ পরিবারের জন্য উপহার বরাদ্দ হয়। এর আগে ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি/ সম্পাদক ২শ জনের একটি তালিকা উপজেলা পুঁজা উদযাপন কমিট বরাবর জমা দেন। তালিকা তৈরীর সময় ইউনিয়নের রুদ্র পাড়া ও পুর্ব শিয়া পাড়া এলাকার ২০/২৫ জন হত দরিদ্রের নাম অর্ন্তভুক্ত করে ইউনিয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক বরাবর জমা দেন রুদ্র পাড়ার বাসিন্দা মাষ্টার অনিল রুদ্রের ছেলে পল্লী চিকিৎসক বিপ্লব রুদ্র নামের এক ব্যক্তি। এদিকে ১৭ অক্টোবর ২শ জনের মাঝে উপহারের ৩ হাজার করে বিতরণ করেন সংশ্লিষ্টরা। এসময় উপহারের জন্য এসে উল্লেখিত এলাকার লোকজন না পেয়ে বাড়ি ফিরে যান। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে ক্ষোভে ফেটে পড়েন ঐ দুই এলাকার লোকজন। বিকালের দিকে তারা জানতে পারে তাদের নামগুলো তালিকা থেকে বাদ দিয়েছে উপজেলা পুঁজা উদযাপন কমিটির এক নেতা।

বিপ্লব রুদ্রের স্ত্রী মিনু রুদ্র, রামচন্দ্র রুদ্রের স্ত্রী অঞ্জনা রুদ্র, মৃত বিবরণ দাশের ছেলে মিলন দাশসহ অনেকেই অভিযোগ করে বলেন তাদের নামগুলো ইচ্ছে করে সদর উপজেলা পুঁজা উদযাপন কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি ডাঃ সনজিৎ দাশ কেটে দিয়েছে। এ ছাড়া তিনি স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে ২৫ টি কার্ড হাতিয়ে নিয়েছে। ঈদগাঁও ইউনিয়নের জন্য বরাদ্দ হলেও ইসলামাবাদ ইউনিয়নে বসাবাসকারী সাতকানিয়া এলাকার দুই আত্মীয় স্বপ্ন দাশ এবং লগ্ন দাশকে কার্ড দিয়েছে ডাঃ সনজিৎ দাশ।

তারা আরো জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতা অপব্যবহার করে উল্লেখিত এলাকার লোকজনকে বিভিন্ন সুবিধা থেকে বঞ্চিত করে আসছেন। ঈদগাঁও ইউনিয়ন পুঁজা উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক ডাঃ পরিতোষ পাল বলেন এ দুই এলাকার হত দরিদ্রদের একটি তালিকা জমা দিয়েছিলাম কেন জানি তাদের নাম গুলো আসে নাই। তিনি আরো জানান, এর পিছনে সদর কমিটির ঐ নেতার ইন্দন রয়েছে।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে ডাঃ সনজিৎ দাশের মোবাইলে একাধিক বার কল দেওয়ার পরও সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। সদর উপজেলা পুঁজা উদযাপন কমিটির সভাপতি দীপক দাশ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজনের জন্য একটি বিরাট মাইলফলক। ইতিপূর্বে কোন সরকার এই উপহার দেননি। এত লোকজনকে তো দেওয়া সম্ভব হবে না।

ডাঃ সনজিৎ দাশের বিষয়টি সত্য নয় দাবী করে তিনি আরো বলেন, হয়ত কোন্দলের জের ধরে কিছু ব্যক্তি অভিযোগ করতে পারে। তারপরও খোঁজ খবর নেওয়া হবে বলে জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •