ডেস্ক নিউজ:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনদিনের সফরে সৌদি আবর যাচ্ছেন। সফরকালে তিনি সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল-সৌদের সাথে বৈঠক করবেন। বৈঠক শেষে সামরিক এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে দুটি সমঝোত স্মারক (এমওইউ) সই হবে। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী ওমরাহ পালন করবেন।

মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে সরাসরি রিয়াদ যাবেন। এসময় তিনি সৌদি বাদশাহর সাথে বৈঠক করবেন। একইদিন প্রধানমন্ত্রী রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের নবনির্মিত নিজস্ব ভবন উদ্বোধন করবেন। তাছাড়া তিনি কাউন্সিল অব সৌদি চেম্বারস আয়োজিত বিজনেস সেমিনারে অংশ নেবেন। রাতে প্রধানমন্ত্রী রিয়াদ থেকে মদীনা যাবেন।

বৃহষ্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী মহানবীর (সাঃ) রওজা জিয়ারত করবেন। এর পর তিনি মদীনা থেকে মক্কা যাবেন এবং রাতে ওমরাহ পালন করবেন। প্রধানমন্ত্রী জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের জন্য কেনা জমিতে নতুন ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন।

শুক্রবার ভোরে প্রধানমন্ত্রী জেদ্দা থেকে বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সফরের ওপর আলোকপাত করে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, প্রধানমন্ত্রী এ সফরকালে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক খাতে অর্জিত সাফল্য সৌদি নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরবেন। তিনি দারিদ্র ও শোষণমূক্ত জ্ঞান-ভিত্তিক উন্নত সোনার বাংলা নির্মাণে আগামী দিনগুলোতে বিভিন্ন খাতে সৌদি আরবের আরো বেশী অংশীদারিত্বের উপায় ও কৌশল নিয়ে আলোচনা করবেন। শ্রমখাত, দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, উন্নয়ন সহায়তা, মুসলিম উম্মাহর বৃহত্তর ঐক্য ও সমৃদ্ধি, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা ইত্যাদি বিষয় আলোচনায় আসবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আবহমান ধর্মীয়, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সম্পর্কের পাশাপাশি সামরিক ক্ষেত্রেও সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক সম্প্রসারিত হচ্ছে। ইতোপূর্বে সৌদি নেতৃত্বাধীন সন্ত্রাসবিরোধী ইসলামি সামরিক জোটে বাংলাদেশ অংশগ্রহণ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৮ মার্চ থেকে ১৫ এপ্রিল সৌদি আরবে আয়োজিত যৌথ সামরিক মহড়ায় (গ্লাফ শিল্ড-১) বাংলাদেশ অংশ নিয়েছে। সৌদি বাদশাহর আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী এ মহড়ার সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফরে সৌদি আবরের সাথে নতুন মাত্রা পাওয়া বাংলাদেশের সম্পর্ক আরো সুদৃর হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •