সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ

কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের চুড়ান্ত প্রার্থী হিসেবে দলটির জেলা সেক্রেটারী মাওলানা মোহাম্মদ শোয়াইবকে ঘোষনা করা হয়েছে। দলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুসারে দলের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম (পীর সাহেব চরমোনাই) তার প্রার্থীতা নিশ্চিত করেন। সম্প্রতি দেশের স্থানীয় ও সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে চমক সৃষ্টি করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। তারই ধারাবাহিকতায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজারের গুরুত্বপূর্ণ এই আসনটিতেও নিজেদের অবস্থান জানান দিতে চায় দলটি। এ লক্ষ্যে সংগঠনের জেলা সেক্রেটারী, সাবেক মেধাবী ছাত্রনেতা ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মাওলানা মোহাম্মদ শোয়াইব (বি.এ (অনার্স), এম.এ, এম.এম) কে কক্সবাজার-৪ আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ইসলামী আন্দোলন ৩০০ আসনে একক প্রার্থী দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে সকল আসনের চুড়ান্ত প্রার্থীর নাম জাতীয় পত্রিকায় (৩০ আগষ্ট, বাংলাদেশ প্রতিদিন) প্রকাশিত হয়েছে। এই তরুণ নেতা ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর উখিয়া উপজেলা সেক্রেটারী, জেলা সেক্রেটারী ও সভাপতির দায়িত্বপালনের পর দুই সেশন কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য ছিলেন। বর্তমানে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জেলা সেক্রেটারীর দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। মাওলানা মোহাম্মদ শোয়াইব কুতুবদিয়াপাড়া মুহিউচ্ছ্ন্নুাহ দাখিল মাদ্রাসার সাবেক সুপার ও দারুল ইহসান ইউনিভার্সিটির খন্ডকালীন লেকচারার ছিলেন। দীর্ঘদিন যাবৎ তিনি সমাজ ও মানবসেবার কাজে নিয়োজিত আছেন। গণমাধ্যমে মাওলানা শোয়াইব বলেন, উখিয়া-টেকনাফের পরিকল্পিত উন্নয়ন, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত সমাজ গঠন ও তরুণ সমাজকে নৈতিক অবক্ষয় থেকে বাচাঁনোর মাধ্যমে দেশকে একটি কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করা আমার অঙ্গীকার। আশাকরি আগামী নির্বাচনে ‘পরিবর্তনের’ জন্য সর্বস্তরের আলেম-ওলামা, দ্বীন-দরদী ও শিক্ষিত সমাজ এবং সচেতন তরুণরাই “হাতপাখা” প্রতীকে আমাকে বিজয়ী করবে ইনশাআল্লাহ। কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে ১৯৯৬ সালের জাতীয় নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন থেকে শাহ্ আবুল মঞ্জুর (মঞ্জুর ফকির) প্রায় বার হাজার ভোট পেয়েছিলেন। এই নির্বাচনী এলাকায় বর্তমানে সংগঠন অনেক বেশী শক্তিশালী হয়েছে। উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিটি রয়েছে। এছাড়া আরও পাঁচটি সহযোগী সংগঠন ইসলামী যুব আন্দোলন, ছাত্র আন্দোলন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন, জাতীয় ওলামা মশায়েখ আইম্মা পরিষদ ও জাতীয় শিক্ষক ফোরাম তৃণমুল পর্যায়ে সাংগঠনিক কাজ পরিচালনা করছে।
মাওলানা মোহাম্মদ শোয়াইবের পিতা আলহাজ্ব ছলিম উল্লাহ উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের দীর্ঘ বিশ বছর ধরে নির্বাচিত মেম্বার ছিলেন। দাদা মরহুম আলহাজ্ব মাওলানা ওবাইদুর রহমান সরকারী অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক।তিনিও এলাকার সম্মানিত ব্যক্তিত্ব ও সমাজসেবক ছিলেন। বংশগতভাবে সমাজসেবার সে গুণাবলী সুযোগ্য মাওলানা মোহাম্মদ শোয়াইব ধারণ করেছেন। ছাত্র জীবন থেকে শুরু করে বর্তমান কর্মজীবনে শত ব্যস্ততার মাঝেও সমাজসেবা ও মানবসেবামূলক কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে সক্ষম হয়েছেন। এছাড়াও একজন আলেম হিসেবে ইসলামের মৌলিক আদর্শ সব মানুষের মাঝে পৌঁছিয়ে দিতে চেষ্টা করেন। ব্যক্তিগতভাবে তিনি মেধাবী, চৌকষ ও প্রাজ্ঞ সংগঠক হিসেবে তার নির্বাচনী এলাকার মানুষ মনে করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •