মহেশখালী সংবাদদাতা
১০ দিন ধরে পানিবন্দি অবস্থায় আছে দ্বীপ উপজেলা মহেশখালী পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড দক্ষিণ রাখাইনপাড়া। পাশ্ববর্তি জেটিঘাট খাল খনন করে মাটি উচু করে রাখায় পানি নামতে পারছেনা। ফলে চলাচলের পথে জমে আছে বৃষ্টির পানি। প্রায় ১০ দিন ধরে পানিবন্দিদশায় পড়ে প্রার্থনা ঘর বৌদ্ধ বিহারেও যেতে পারছেনা ধর্মপালনকারীরা।
সরেজমিন দেখা গেছে, জেটির দক্ষিণ পাশে মাটি ভরাট করে স্তুপাকারে রাখা হয়েছে। সেকারণে দক্ষিণ রাখাইনপাড়ার একমাত্র নালাটি ভরে গেছে। নিষ্কাশন পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পুরো এলাকা পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়েছে। স্কুলে যেতে পারছেনা ছাত্রছাত্রীরা। স্থবির হয়ে পড়েছে জীবনযাত্রা।
স্থানীয়রা আক্ষেপ করে জানায়, মহেশখালী উপজেলাকে সরকার ডিজিটাল আইল্যান্ড ঘোষণা করেছে। কিন্তু সড়কের অবস্থায় বাস্তবতার সাথে কোন মিল নেই। বর্ষা মৌসুমে গ্রামীণ সড়কগুলোর করুণ দশা হয়ে যায়। এককালে বৃষ্টির পানি জমে না থাকলেও আজকাল অল্প বৃষ্টিতেই সড়কগুলোর চিত্র পাল্টে যায়। হাঁটাচলা দায় পড়ে। মূলতঃ যত্রতত্র স্থাপনা, নিয়মিত পয়ঃনিষ্কাষণ ব্যবস্থা না থাকায় এমন অবস্থা বলে পৌরবাসী মনে করে।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, রাস্তার ময়লাক্ত পানি বাসাবাড়িতে ঢুকে পড়েছে। অতিরিক্ত পানির কারণে নালা চিনতে না পেরে আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন। নালার দুর্গন্ধে অনেক ছোট বাচ্চার ডাইরিয়া, আমাশয় ধরেছে। জ্বরে ভুগছে অনেকে। বসতবাড়ীবসত রান্না ঘরে হাটু পানির কারণে চুলায় আগুন জ্বলে না।
তাই অতি শিঘ্রই পানি নিষ্কাষণের ব্যবস্থা নিতে পৌর কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে দুর্ভোগের শিকার মানুষগুলো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •