ফারুক আহমদ, উখিয়া:

উখিয়ার লম্বরী পাড়া গ্রামে আব্দুর রহমান (২০) নামক এক যুবককে অপহরণ করে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। স্থানীয় জনগণ মুমর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে পিতা মোহাম্মদ ছিদ্দিক বাদী হয়ে উখিয়া থানায় ৫ জন কে বিবাদী করে এজাহার দায়ের করেছে।

জানা যায়, উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের লম্বরী পাড়া গ্রামের আব্দুর রহমান গত ৬ আগস্ট রাতে আবুল তালেবের দোকানের সামনে বাড়ীতে ফেরার জন্য অপেক্ষা করছিল। ওই সময় পূর্বপরিকল্পিত ভাবে একই এলাকার হোছন আলীর পুত্র ছলিম উল্লাহ ও মৃত শাহাব মিয়ার পুত্র আব্দুল গফুরের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী তার উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে অস্ত্রের মুখে আব্দুর রহমানকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়।

আহতের পিতা মোহাম্মদ ছিদ্দিক অভিযোগ করে বলেন, পূর্বশুত্রুতার জের ধরে আমার ছেলেকে সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড, হাতুড়ি, বিভিন্ন অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে অমানষিক নির্যাতন চালায়। এক পর্যায়ে শোর চিৎকার শুনে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আব্দুর রহমানকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ১১ জুলাই সরকারী কৃষি অফিসে বিতরণকৃত সেচ যন্ত্র নিয়ে আহতের চাচা আবু বক্কর ছিদ্দিক বাড়ীতে ফেরার পথে একই সন্ত্রাসী গ্রুপ মারধর করে সেচ যন্ত্র সহ কৃষি উপকরণ ছিনতায় করে নিয়ে গিয়েছিল। উক্ত বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিত ভাবে অভিযোগ করা হয়েছিল।

এদিকে প্রকাশ্যে অপহরণ করে হত্যার অপচেষ্টার ঘটনায় ছলিম উল্লাহ, আব্দুল গফুর, হোছন আলী, সাইফুল ইসলাম সহ ৫ জনকে প্রধান আসামী করে উখিয়া থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে। তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মাহবুব জানান, ঘটনাটি তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •