ডেস্ক নিউজ:
পটুয়াখালীতে পৌনে ৭ লাখ ইয়াবা ও বিদেশী অস্ত্রসহ আটক হয়েছে টেকনাফের দুই মাদক গডফাদার। আটকের পর মিথ্যা ঠিকানা ব্যবহার করে পার পাওয়ার চেষ্টা করে তারা। তাদের এ অপতৎপরতায় স্থানীয় জনসাধারণের মনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, শনিবার ভোরে র‌্যাব-৮ কর্তৃপক্ষ কুয়াকাটা সাগর পথ দিয়ে ইয়াবার বিরাট একটি চালান খালাসের খবর পায় নিজস্ব গোয়েন্দা সংবাদের কাছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানার শেখ কামাল ব্রিজের দক্ষিণ পাশে অভিযান চালিয়ে ৬ লাখ ৭৭ হাজার ৫৬পিস ইয়াবা এবং ২টি বিদেশি অস্ত্রসহ আটক করে।

আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের টেকনাফের পশ্চিম পানখালীর মোঃ ইউনুচ আলীর পুত্র মোঃ ইব্রাহীম (২৫) ও উখিয়ার আবুল হোসেনের পুত্র মোঃ আলম (৩০) বলে পরিচয় দেয়। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে আটককৃতরা টেকনাফের হ্নীলা পশ্চিম সিকদার পাড়ায় (মন্ডলপাড়া) বসবাসকারী বার্মাইয়া নাগরিক হাফেজ খায়রুল আমিনের পুত্র মৌঃ মোঃ ইব্রাহীম (২৫) এবং বার্মাইয়া নুর হোছনের পুত্র ছৈয়দুল আমিন (৩০) বলে স্থানীয় জনসাধারণ নিশ্চিত করেন।

এদিকে উক্ত ইয়াবা গডফাদার ইব্রাহীম এবং রিক্সা মেরামতকারী ছৈয়দুল আমিন এর আগেও কয়েকবার ইয়াবার চালানসহ আটক হয়। তারপর তাদের পৃষ্টপোষকতা দানকারী গডফাদারদের সহায়তায় জামিনে বেরিয়ে আসে। এদিকে মাদকবিরোধী অভিযান জোরদার হওয়ার পর ইব্রাহীমের পিতা হাফেজ খাইরুল আমিন গ্রামের বাসা ভাড়া দিয়ে চট্টগ্রাম শহরে আলিশান বাসায় অবস্থান করছে। আর ইয়াবা গডফাদার ইব্রাহীম কৌশলে মাদক বাণিজ্য চালিয়ে আসছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •