প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

দ্বীপের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকায় ভোট দিতে হবে। কুতুবদিয়াকে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধ এরাকা হিসেবে গড়ে তুলতে বর্তমান আ‘লীগ সরকার মনোনীত প্রাথীকে বেছে নিতে হবে।  (৬ অক্টোবর) বিকালে কুতুবদিয়া উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ৩দিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলার সমাপনিী দিবসে মহেশখালী-কুতুবদিয়ার সংসদ সদস্য আলহাজ আশেক উল্লাহ রফিক প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী থাকলে দেশের উন্নয়ন হয়, আর অন্য কেউ হলে দেশে লুটপট হয়। যারা এতিমের টাকার লোভ সামলাতে পারে না তাদেও কাছে দেশ ও জাতি নিরাপদ নয়। একই ভাবে ৯১ সালের ঘূর্ণীঝড়ের পরে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী শেখ হাসিনার আহবানে বিশ্ববাসী সাহয্যে হাত বাড়ি ছিল মহেশখালী-কুতুবদিয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের দিকে। কিন্তু সেই টাকা তারা এখানে খরচ না করে অন্য একটি উপজেলায় খরচ করার নামে লুটপাট করেছেন।

উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মনোয়ারা বেগমের সভাপতিত্বে বড়ঘোপ সিটিজেন পার্ক মাঠে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- কুতুবদিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস, উপজেলা আ‘লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর,সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুচছাফা, জেলা পরিষদ সদস্য মাশরফা জান্নাত, মহেশখালীর কুতুবজুম ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসাইন খোকন, ধলঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসান, জেলা আ‘লীগ সদস্য শফিউল আলম কুতুবী, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা মেহেরুননেছা, মাস্টার আবু তাহের, শহিদুল ইসলাম, মেজবাহ উদ্দিন, যুবলীগের আহবাযক আবু জাফর, যুগ্ম আহবায়ক সেলিম উদ্দিন লিটন, প্রমূখ।

এর তিনি বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করে। দুপুর ১২টায় মুরালিয়া গ্রামে শাহী জামে মসজিদের ঈদগাও মাঠের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

পরে উন্নয়ন মেলায় অংশগ্রহণকারী স্টলগুলোর মাঝে পুরুষ্কার বিতরণ করা হয়। এতে প্রথম স্থান অর্জন করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, ২য় স্থান উপজেলা প্রকল্প কার্যালয় ও ৩য় হয় উপজেলা এলজিইডি কার্যালয়। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন সহকারি শিক্ষক মাকসুদ আলম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •