বার্তা পরিবেশক :
পৈত্রিক জমি-জমা ও দোকান ঘর দখল-বেদখল কেন্দ্র করে তার ভাইয়েরা দীর্ঘদিন ধরে মামলা-হামলাসহ নানা হয়রানি করছে অভিযোগ করেছেন নূরুল আজিম নামে এক ব্যক্তি। এতে শারীরিক, মানসিক ও আর্থিকভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন তিনি। ভুক্তভোগী আজিম অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। ফলে পরিবার নিয়ে তিনি চরম কষ্টে রয়েছেন। গতকাল বুধবার (৩ অক্টোবর) শহরের এক হোটেলে এক সংবাদ সম্মেলনে তার এই দুর্দশার কথা জানান তিনি।

নূরুল আজিম অভিযোগ করে জানান, কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামপুর নতুন অফিস এলাকার নূরুল আজিম ও তার ভাইদের মধ্যে পৈত্রিক নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। এই নিয়ে অন্য ভাইয়েরা কয়েকবার নূরুল আজিম ও তার পরিবারের উপর হামলা করেছে। একই সাথে নানা ভাবে হয়রানি করে আসছে। ভাইদের মধ্যে এই বিরোধ ও গন্ডগোলের মুলহোতা শাহজাহান শাহীন নামে তাদের ছোট ভাই। এই শাহীন অন্য ভাইদের নানা ভাবে কুপ্ররোচনা দিয়ে নূরুল আজিমের বিরুদ্ধে সময় লাগিয়ে দেন। এর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে শাহীন নিজের প্রভাব কাটিয়ে সম্প্রতি সম্পূর্ণ সাজানো ঘটনায় নূরুল আজিম, তার ইউনিভার্সিটি থেকে অনার্স-মাস্টার্স পাশ করা বিসিএস পরীক্ষার্থী পুত্র শহিদুল ইসলাম হিরু, একই এলাকার কামরুল ইসলাম সবুজ ও নূরুল আবছারকে আসামী করে কক্সবাজার থানায় একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। এর মধ্যে নূরুল আজিমের সাথে চলাফেরা করার অভিযোগ তুলেই কামরুল ইসলাম সবুজ ও নূরুল আবছারকে আসামীকে করা হয়েছে।

নূরুল আজিম অভিযোগ করে বলেন, আমি শাহজাহান শাহীন বা অন্য ভাইদের কোনো জমি দখল করে ভোগ করছি না। তারা সিন্ডিকেট করে আমার স্বত্বীয় জমি দখল করার আমার বিরুদ্ধে লেগেই আছে। আমি অসহায় বলে তারা আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা করেছে। সর্বশেষ কোনো ঘটনা ছাড়াই সম্পূর্ণ সাজানোভাবে আমাদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। এই শাহজাহান শাহীনই এ মামলার সব কিছু করে দিয়েছে।

নূরুল আজিম বলেন, আমি অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আর সহ্য করতে পারছি না। নির্যাতনের কারণে আমি আজ নি:স্ব হয়ে গেছি। আমি এবার নিস্তার চাই। দয়া করে আমাকে নিস্তার দেয়া হোক। এভাবে হয়রানি করা হলে আমি আদালতের আশ্রয় নিতে বাধ্য হবো। এই জন্য আমি কক্সবাজার সদর মডেল থানা ও চকরিয়া থানার ওসির কাছে সহযোগিতা ও সাহায্য প্রার্থণা করছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •