আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ক্যান্সারের চিকিৎসা তথা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন থেরাপি আবিষ্কারের জন্য এবার চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র ও জাপানের দুই বিজ্ঞানী।

সোমবার সুইডেনের ক্যারোলিনস্কা ইনস্টিটিউট চিকিৎসা বিজ্ঞানে ২০১৮ সনের বিজয়ী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের জেমস পি অ্যালিসন ও জাপানের তাসুকু হোনজোর নাম ঘোষণা করে। অ্যালিসন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস এমডি অ্যান্ডারসন ক্যান্সার সেন্টারের অধ্যাপক এবং হোনজো জাপানের কিয়োটো ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক।

আগামী ১০ ডিসেম্বর সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। নোবেল পুরস্কারের ৮০ লাখ সুইডিশ ক্রোনার এই দুই বিজ্ঞানী ভাগ করে নেবেন।

আগামীকাল মঙ্গলবার পদার্থ বিজ্ঞান, বুধবার রসায়ন, শুক্রবার শান্তি এবং আগামী ৮ অক্টোবর অর্থনীতিতে এবারের নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

এদিকে বিতর্কের মধ্যে এবার সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার স্থগিত করেছে রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি।

চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে ক্যারোলিনস্কা ইনস্টিটিউট বলেছে, নেতিবাচক ইমিউন নিয়ন্ত্রণে বাধাদানের মাধ্যমে যুগান্তকারী ক্যান্সার থেরাপি আবিষ্কারের জন্য অ্যালিসন ও হোনজো এই পুরস্কার পেয়েছেন।

এই থেরাপি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন। ইমিউন সিস্টেম শরীরের পরিবর্তিত কোষ খুঁজে বের করে সেগুলো ধ্বংস করে। কিন্তু ইমিউনের আক্রমণ থেকে লুকানোর চেষ্টা করে ক্যান্সার কোষ। এভাবে শরীরে ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি ও বিস্তার ঘটায়। এ দুই বিজ্ঞানী টি-সেলের প্রোটিন নিয়ে গবেষণা করেছেন যা কার্যকরভাবে টিউমার কোষের আক্রমণ থেকে শরীরের প্রধান ইমিউন কোষকে রক্ষা করে।

গত বছর চিকিৎসায় নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন তিন মার্কিন বিজ্ঞানী  জেফ্রি হল, মাইকেল রসবাশ ও মাইকেল ইয়াং। মানুষ, উদ্ভিদসহ অন্যান্য প্রাণি কীভাবে বিভিন্ন অভ্যাসে অভ্যস্ত হয় সেবিষয়ে গবেষণার জন্য তাদের এই পুরস্কার দেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯০১ সালে থেকে এবার নিয়ে এ পর্যন্ত চিকিৎসা বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে ১০৯ বার। মাঝখানে  দুই বিশ্বযুদ্ধের সময়ে কয়েক বছর পুরস্কার ঘোষণা করা হয়নি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যৌথ পুরস্কার ঘোষণা হয়েছে। এককভাবে এই পুরস্কার জিতেছেন ৩৮ জন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •