মালয়েশিয়ায় সাতদিনে বাংলাদেশিসহ ৪ শতাধিক অভিবাসী আটক

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:

অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ার চলমান অভিযানে গত সাতদিনে বাংলাদেশিসহ ৪ শতাধিক অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে। বৈধ কাগজপত্র না থাকা কিংবা দেশটিতে বিভিন্ন অবৈধ কাজে যুক্ত থাকার অভিযোগে তাদের আটক করে ইমিগ্রেশন বিভাগ। তবে আটকের মধ্যে বাংলাদেশি কতজন আছে এখনো জানা যায়নি।

মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম দ্য স্টার ডট কমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির অভিবাসন বিভাগ শুধুমাত্র অবৈধদের আটক করছে। ২১ সেপ্টেম্বর মোট ৩৩৮ জন বিদেশি শ্রমিককে আটক করা হয়। অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক মুসতাফার আলি জানিয়েছেন, আটক শ্রমিকদের মধ্যে ৫৫ জন বাংলাদেশি পুরুষ রয়েছেন।

এছাড়া ইন্দোনেশিয়ার ৩৬ জন পুরুষ ও ১৭২ জন নারী শ্রমিককে আটক করা হয়েছে। অভিযানে আটক হয়েছে মিয়ানমারের ২৫ জন পুরুষ ও তিনজন নারী শ্রমিক। এছাড়া ৪৭ জন নেপালি পুরুষ শ্রমিককেও আটক করা হয়েছে।

মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগ জানিয়েছে, আটক শ্রমিকদের কাজ করার উপযুক্ত বৈধতা ছিল না। দাতুক সেরি মুসতাফার আলি বলেন, ‘আমরা প্রায় ২ হাজার ২৩০ জনের কাগজপত্র পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছি। পরে ৩৩৮ জনকে আটক করা হয়। তাদের বেশির ভাগই বিদেশি শ্রমিক হিসেবে অস্থায়ীভাবে কাজ করার অনুমতি নিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির হয়ে কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল।’

এছাড়া গত তিনদিনে (২২ সেপ্টেম্বর ৫৫ জন), দেশটির সেগামবাতে একটি নির্মাণ সাইটে অভিযান চালিয়ে মোট ১৭৭ জন অবৈধ অভিবাসীকে আটক করা হয়, যার মধ্যে ১৪৫ জনই বাংলাদেশি।

দেশটির ফেডারেল টেরিটরিজ ইমেগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট, ফেডারেল টেরিটরিজ কন্সট্রাকশন ইনডাস্ট্রি ডেভলপমেন্ট বোর্ড এবং মেম্বার অব দ্যা পিপলস ভলান্টিয়ার কোর্পস যৌথভাবে এই অভিযান পরিচালনা করে।

কুয়ালালামপুর ইমিগ্রেশনের পরিচালক হামিদি আদম বলেন, ‘এই অভিযানে মোট ১৪৫ জন বাংলাদেশি ও ২৯ জন ইন্দোনেশিয়ান নাগরিক আটক হয়েছেন। এছাড়াও এই অভিযানে দুই মিয়ানমার নাগরিক ও একজন ভারতীয় নাগরিক আটক হয়েছেন। অভিযানে মোট ৩২০ জন শ্রমিকের তথ্য উপাত্ত যাচাই করা হয়েছে।’

৩০ জুন পুনর্বাসন কর্মসূচি শেষ হওয়ার পর মালয়েশিয়া অনিয়মিত অভিবাসীদের ওপর অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে ইমিগ্রেশন বিভাগ।

আটকের বিষয়ে জানতে চাইলে ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক মুস্তাফার আলী বলেন, অভিযান অব্যাহত থাকবে। ১৪ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা বার্নামার প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, আটক বাংলাদেশিদের সঠিক সংখ্যা নিশ্চিত করা যায়নি। তবে জানুয়ারি থেকে ৩০ হাজার বিদেশি কর্মীকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬ হাজার বাংলাদেশি।

বর্তমানে, প্রায় ১০ লাখ বাংলাদেশি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এ দেশটি রয়েছেন। তাদের মধ্যে, প্রায় অর্ধেক অভিবাসী। তাদের অধিকাংশই কাজের অবস্থা নিয়মিতকরণের জন্য প্রযোজ্য এবং প্রক্রিয়াগুলোর জন্য ৬ থেকে ১০ হাজার রিংগিট ব্যয় করেন। তবে প্রায় ৮০ শতাংশ এখনও পারমিট না পাওয়ায় অনিশ্চয়তা ও আতঙ্কে দিন পার করছেন।

সর্বশেষ সংবাদ

চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী

চকরিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সততা স্টোর উদ্বোধন

ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীদের মিলনমেলা ২৯ ফেব্রুয়ারী

দীর্ঘ ৫৪ বছর পর শহীদ মিনার পেলো পৌর প্রিপ্যার‌্যাটরি উচ্চ বিদ্যালয়

সাংবাদিক আকাশের পিতা ওমরাহ হজ্ব করতে সৌদি যাত্রা : দোয়া কামনা

‘ মনগড়া’ সংবাদের প্রতিবাদ ও নিন্দা মিজানের

সরকারি সফরে গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীর থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়া যাত্রা

উদ্ধার ৯৩লাখ ৮০ হাজার টাকা ও ১৫ লাখ টাকার চেক, মামলা করবে র‌্যাব

সার্ভেয়ারদের ব্যক্তিগত অপরাধের দায় জেলা প্রশাসন নেবেনা , আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা : ডিসি কামাল হোসেন

চকরিয়ায় বসতভিটার বিরোধে দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, কলেজ ছাত্রীসহ আহত-২৪

হোটেল মোটেল জোনের আবর্জনা সংগ্রহ ও অপসারনে জরুরী সভা

এড. আমির হোছাইন হাইস্কুল ও আমির মরতুজা কে,জি’র বার্ষিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন

ঈদগড়ে পুলিশের অভিযানে ৯৩০ পিচ ইয়াবাসহ ২ পাচারকারী আটক

দৈনিক আজকের দেশ-বিদেশে প্রকাশিত সংবাদে মনু’র প্রতিবাদ

খরুলিয়ায় স্কুল ছাত্রী অপহরণ, আটক ১

কক্সবাজার সাগর তীরে উঁচু স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না : প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রামে ১৩’শ ইয়াবাসহ কক্সবাজারের মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

জিপিএ ৪-এর গ্রেডিংবিন্যাস চূড়ান্ত

বাঁকখালীর দু’তীরে হাজারো মানুষ খুঁজে নিয়েছে জীবন নির্বাহের গন্তব্য

রামুতে আটক ছয় রোহিঙ্গাকে ১ মাস করে সাজা