cbn  

চবি সংবাদদাতাঃ

বরখাস্ত করার আধ ঘন্টা পার না হতেই বরখাস্তের আদেশ নাটকীয়ভাবে পরিবর্তনের অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে। পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগে এই আদেশ দেয়া হয়েছিল বলে জানান ডেপুটি রেজিস্টার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নুর আহমেদ ।

বরখাস্ত হওয়া অধ্যাপক ড. সুপ্তিকনা মজুমদার ও সহকারী অধ্যাপক শিপক কৃষ্ণ দেব নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক। বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোঃ শামশুল আলম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তথ্য জানানো হয়েছিল।

এ বিষয় নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে ধুম্রজাল। শিক্ষকদের মধ্যে দেখা দিয়েছে নানামুখী আলাপন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নূর আহামেদ বলেন, আধ ঘন্টার মধ্যেই দুই শিক্ষকের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে। নাটকীয়ভাবে এর আগের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ পরিবর্তন হলেও প্রাথমিক তদন্তে অপরাধ গুরুতর নয় বিবেচনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তা প্রত্যাহার করে নেয়। পাশাপাশি অধিকতর তদন্তের জন্যে আরেকটি কমিটি গঠন করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোঃ সামশুল আলম স্বাক্ষরিত বরখাস্তের আদেশে উল্লেখ করা হয়, পরীক্ষার কাজে অনিয়মের বিষয়ে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রদত্ত প্রতিবেদন ও ৫১৬ তম সিন্ডিকেট সভার ৮ নং সিদ্ধান্তে উপাচার্যের প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সংস্কৃত বিভাগের দুই শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। চবি কর্মচারী (দক্ষতা ও শৃঙ্খল) সংবিধির ১৫(বি) ধারানুসারে এই বহিষ্কারাদেশ দেয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদনে অপরাধ বিবেচনায় তাদেরকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। তবে,অধিকতর তদন্তের জন্য আরো একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটি আগামী সাত দিনের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দিবে। এর ভিত্তিতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •