আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :

জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড-২০১৮ উপলক্ষে ইয়াং বাংলা এক্টিভেশন কার্যক্রম রাঙামাটিতে শুরু হয়েছে। শনিবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত চলে এ কার্যক্রম। রাঙামাটি জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলাপ্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশিদ।

তরুনদের অনুপ্রাণিত করতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাদের অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করে আসছে ইয়াং বাংলা। তারই ধারাবাহিকতায় সেন্টার ফর রিসার্স এন্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) ও ইয়াং বাংলার উদ্যোগে সংগঠনের কার্যক্রমের উপর রেজিস্ট্রেশন করা হচ্ছে। অনলাইনে ও অফলাইনেও ফরম পূরন করা যাবে বলে জানান আয়োজকরা।

আয়োজকদের কাছ থেকে জানাগেছে, চলতি বছরের ২১ থেকে ২২ অক্টোবর তরুণদের প্ল্যাটফর্ম ইয়াং বাংলার আয়োজনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তৃতীয় জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড। ইয়াং বাংলার সাচিবিক কার্যালয় সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) নির্বাহী পরিচালক সাব্বির বিন শামস তথ্য জানান। এবার তরুণদের নেতৃত্বে দেশ গঠনে এগিয়ে যাওয়া ৩০ সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হবে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড।

জানাগেছে, ১০টি বিভাগে বিশেষ অবদানের জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হবে। এর মধ্যে দক্ষতার উন্নয়ন, সর্বব্যাপী শিক্ষা, বিশেষভাবে সক্ষমদের (প্রতিবন্ধী) জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা, সাংস্কৃতিক বিপ্লব, উদ্ভাবক, খেলাধুলা, ফিটনেস, জনসচেতনতা সৃষ্টি, লিঙ্গবৈষম্য হ্রাসসহ আরও বেশ কিছু বিভাগ রয়েছে। সম্প্রতি নিরাপদ সড়ক বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টির জন্য বা পরিবেশ রক্ষায় কাজ করে যাওয়া তরুণেরা তাদের জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমকে আরও বড় পরিসরে উপস্থাপন করতে পারে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডে আবেদনের মাধ্যমে। পরিবেশ রক্ষার মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন, তরুণদের জন্য খেলাধুলা ও স্বাস্থ্যচর্চার ব্যবস্থা করা সংগঠনগুলোও আবেদন করতে পারবে।

এ বছর আয়োজনে অংশ নিতে অনলাইনে আবেদন ফরম ছাড়া হয়েছে গত ২১ আগস্ট থেকে। এবারও ১৮ থকে ৩৫ বছর বয়সী বাংলাদেশি তরুণেরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন http://youngbangla.org/member/joy-bangla-youth-award-2018.php লিংকে রেজিস্ট্রেশনের জন্য আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন ইয়াং বাংলার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে http://www.youngbangla.org/ আবেদনের শেষ সময় ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮।

৩০ সেপ্টেম্বরের পর বিশেষভাবে শীর্ষ আবেদনকারীদের বাছাই করা হবে। পরবর্তী সময়ে বাছাই করা এই সংগঠনগুলোর কাজ ও সমাজে তার প্রভাব দেখার জন্য মাঠপর্যায়ে পর্যবেক্ষণে যাবে ইয়াং বাংলা টিম। সেখান থেকে শীর্ষ ৩০ সংগঠনকে বাছাই করা হবে। ২০ অক্টোবর জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড আয়োজনের প্রথম দিন বাছাইকৃত এই সংগঠনগুলোর তরুণ উদ্যোক্তাদের নিয়ে বিশেষ সেশন আয়োজন করা হবে, যেখানে তাদের সংগঠন নিয়ে কাজ করে যাওয়ার পথে বাধা এবং তা থেকে উৎরানোর মাধ্যমে আরও এগিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি সম্পন্ন হবে। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে বরাবরের মতোই বিজয়ী সংগঠনগুলোর হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। ‘ভিশন ২০২১’-কে লক্ষ্যে রেখে দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তরুণ প্রজন্মকে সরাসরি অন্তর্ভুক্ত করার উদ্দেশ্যে তাদের নতুন ধারণা ও উদ্ভাবনগুলো উত্থাপন করার জন্যই ২০১৪ সালের ১৫ নভেম্বর আত্মপ্রকাশ করে ইয়াং বাংলা। ১৫ হাজারের বেশি স্বেচ্ছাসেবী এবং ২০০টির বেশি সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে চলা এই সংগঠনটির বর্তমানে সদস্য সংখ্যা প্রায় ২ লাখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •