দেড় লাখ ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত

ডেস্ক নিউজ:
* একনেকে ৩ হাজার ৮২৫ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন * পর্যায়ক্রমে ব্যবহারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * তিন ধাপে ক্রয় করা হবে এসব মেশিন

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে। এজন্য ৩ হাজার ৮২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে। এর মাধ্যমে দেড় লাখ ইভিএম কেনা হবে। তবে এটি পর্যায়ক্রমে ব্যবহার করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রকল্পের অর্থ দিয়ে তিন ধাপে এসব মেশিন ক্রয় করা হবে।

মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রকল্পটি অনুমোদন করা হয়েছে। রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আজকের সভায় সভাপতিত্ব করেন একনেক চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

নির্বাচন আইনের সংস্কার, রাজনৈতিক দলের মতামতসহ সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এক তৃতীয়াংশ আসনে ইভিএম ব্যবহার করতে চায় নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এজন্য প্রকল্প প্রস্তাব পরিকল্পনা কমিশনে পাঠায় তারা।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, পর্যায়ক্রমে ব্যবহার হবে এসব ইভিএম। আগামী নির্বাচনে ব্যবহারের জন্য গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ (আরপিও) সংশোধন করবে নির্বাচন কমিশন।

ইসির পাঠানো প্রকল্প প্রস্তাবনায় দেখা গেছে, ইসি সচিবালয়ের ৩ হাজার ১১০ জন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে নির্বাচন প্রক্রিয়ার সামগ্রিক দক্ষতা বৃদ্ধি ও এ বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রকল্পটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

প্রস্তাবনায় ইসি জানায়, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের মূল দায়িত্ব হলো জাতীয় সংসদ ও স্থানীয় সরকার নির্বাচন সম্পন্ন করা। এছাড়া ইভিএমের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দিক তুলে ধরা হয় এতে।

ইভিএম ব্যবহারের জন্য গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধনের সিদ্ধান্তের কথা গত ৩০ আগস্ট জানায় ইসি। এরই মধ্যে তাদের পক্ষ থেকে প্রকল্প অনুমোদনের আগেই এসব যন্ত্রপাতি আনতে ব্যাংকে এলসিও (ঋণপত্র) খোলা হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে জানা গেছে, মাত্র দেড় লাখ ইভিএম সিস্টেম এবং সংশ্লিষ্ট যন্ত্রপাতি কেনার জন্য প্রকল্পের প্রস্তাবিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৮২১ কোটি ৭ লাখ টাকা। এতে প্রতি ইউনিট ইভিএমের দাম পড়বে প্রায় দুই লাখ টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদকাল ধরা হয়েছে চলতি বছর থেকে ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত। যদিও বর্তমান সরকারের মেয়াদ ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে শেষ হবে। তার আগে ডিসেম্বরে নতুন সরকার গঠনের জন্য জাতীয় সংসদ নির্বাচন হওয়ার কথা। সেক্ষেত্রে ভোটের বাকি আছে মাত্র কয়েক মাস।

সর্বশেষ সংবাদ

পণ্যের মান বজায় রাখতে প্রশাসন কাউকে ছাড় দেবেনা : ডিসি কামাল হোসেন

নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপিতে ভোট গ্রহণ চলছে, ভোটার উপস্থিতি কম

উখিয়ায় দুই ছাত্র-ছাত্রীর পলায়নের জেরে উত্তেজনা

কক্সবাজার সিটি কলেজ – নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

নাইক্ষ্যংছড়ি ৩ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ চলছে

আগামী ৮ ই নভেম্বর বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইউএই’র নির্বাচন

নববধূকে তালাক দিয়ে শাশুড়িকে বিয়ে

পিয়ন থেকে ১২শ’ কোটি টাকার মালিক আনিস

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার- ৫

প্রিয় শিক্ষার্থীরা: হাতে বই থাকার কথা, হাতকড়া কেন?

নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপির ভোট আজ : বহিরাগত ঠেকাতে বারটি তল্লাশিচৌকি

চট্টগ্রামে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবলীগ নেতা খোরশেদ নিহত

নাইক্ষ্যংছড়ির ৩ ইউনিয়ন, টেকনাফ সদর ও বড়ঘোপে ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে সোমবার সাধারণ ছুটি

চকরিয়ায় বিপুল উদ্দীপনায় বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব প্রবারণা পূর্ণিমা

প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবকের স্বর্ণপদক নিলেন চকরিয়ার বুলবুল জন্নাত

শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে মেয়র মুজিবের মৈত্রিময় শুভেচ্ছা

কক্সবাজারে শতাধিক বৌদ্ধ বিহারে প্রবারণা উৎসব শুরু

আট মহল্লা সমাজ কমিটির দাবী : সড়ক ফুটপাথ দখলমুক্ত ও ছিনতাই বন্ধ করুন

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপিত

মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর নতুন খতিব ও ইমাম হলেন যারা