cbn  

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ :
টেকনাফ-উখিয়া সংসদীয় আসনের সাবেক এমপি হাজী আবদুল গণি (৯২) ইন্তেকাল করেছেন বলে জানা গেছে। (ইন্না লিল্লাহি … রাজিউন)। তিনি চট্রগ্রাম মেট্রোপলিটন হাসপাতালে আজ শনিবার ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল সোয়া ৭টায় ইন্তেকাল করেন। এমপি গণি উক্ত হাসপাতালে মেডিসিনের বিশেষজ্ঞ ডা. একেএম হাসানের তত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে বার্ধক্যজনিক অচলাবস্থা ছাড়াও খাদ্য নালীতে সমস্যাসহ বিভিন্ন জঠিল রোগে ভুগছেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে থাইল্যান্ডেও নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।
তাঁর ৬ষ্ট পুত্র সাইফুদ্দীন খালেদ (০১৮১৮৮৯৭০১১) এবং নিকট আত্মীয় টেকনাফ কেকেপাড়া আয়েশা ছিদ্দীকা (রাঃ) বালিকা মাদ্রাসার পরিচালক আলহাজ্ব হাফেজ মাওঃ এনায়তুর রহীম (০১৮১৯৯৪১০৪৪) উক্ত তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে জানাজার নামাজের সময় এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। বাদে এশা টেকনাফ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে জানাজার নামাজ অনুষ্টিত হতে পারে।
উল্লেখ্য, টেকনাফ কেকেপাড়া প্রয়াত আয়ুব আলী সওদাগর ও প্রয়াত দিলআরা বেগমের পুত্র হাজী আবদুল গণি জীবদ্দশায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সক্রিয় রাজনৈতিক নেতা, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্টানের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি দীর্ঘ সময় কাল টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। স্বাধীনতা যুদ্ধের আগে থেকে তিনি টেকনাফ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। ১৯৮৮ সালে তিনি এমপি নির্বাচিত হন। স্ত্রী মুশফিকা বেগম গত বছরের ১৩ জানুয়ারী ইন্তেকাল করেন। তিনি ৮ ছেলে এবং ২ মেয়ে অসংখ্য গুনগ্রাহী, আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাংখী রেখে যান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •