ইসলামাবাদে এক মাজারের নামে বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের আশঙ্কা

মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আজাদ, ঈদগাঁও :

কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদ ইউনিয়নের পশ্চিম গজালিয়াস্থ হযরত শাহ পেঠান ফকিরের মাজারে বিদ্যুৎ স্থাপনের জন্য ২/১টি খুঁটিই যথেষ্ট। পশ্চিম গজালিয়াস্থ স্থান দিয়ে মাত্র ২টি খুঁটি স্থাপন করলেই মাজারে বিদ্যুৎ চলে যায়। তা না করে কতিপয় প্রভাবশালী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষকে ভুল তথ্য দিয়ে পশ্চিম গজালিয়াস্থ ঐতিহাসিক ফুটবল মাঠের পশ্চিম দিক থেকে বনবিভাগের জায়গা ও ১০ পরিবারের বসতঘরের উপর দিয়ে বর্তমানে জোর পূর্বক খুঁটিগুলি স্থাপিত করতে যাওয়ায় গ্রামবাসী ও বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। গ্রামবাসীর দাবী ও সরেজমিনে দেখা যায় ৬/৭টি খুঁটির জন্য কয়েক শতাধিক বাঁশ ও বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটেই এ সংযোগটি চালু করতে হবে। গত রমজান মাসে খুঁটিগুলি জোর পূর্বক স্থাপন করতে গিয়ে বাঁধার সম্মুখীন হলে ঠিকাদার মানিক খুঁটিগুলি স্থাপন না করেই বন্ধ করে রাখে। এদিকে কতিপয় স্বার্থান্বেষী মহল বিদ্যুৎ ও পুলিশ কর্তৃপক্ষকে ভুল তথ্য দিয়ে পল্লী বিদ্যুতের কাজে বাঁধা প্রদানের অযুহাতে ভূক্তভোগী এক পরিবারকে আটকেরও চেষ্টা করে। সম্প্রতি নাপিতখালী বনবিট ও ভোমরিয়াঘোনা বিটের কতিপয় কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে এসে গাছ না কেটে বিকল্প জায়গা দিয়ে খুঁটি স্থাপনের অনুরোধ করেন। সরেজমিন দেখা যায়, ৩টি খুঁটি একেবারে স্থানীয় বসতভিটার ভিতরে। ঐ খুঁটির উপর বিদ্যুতের তার স্থাপন করলে কয়েক শতাধিক গাছ কেটে ফেলতে হবে। এদিকে সরকার গাছ লাগান, পরিবেশ বাচান, গাছে সত্যি টাকা ফলে এ শ্লোগানকে সামনে রেখে প্রতি বছর গাছ রোপন করে আসলেও মুষ্টিমেয় ২/৩ পরিবারের জন্য কেন গাছ কেটে বিদ্যুৎ নিয়ে যেতে হবে। তাই উর্ধ্বতন বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের কাছে গ্রামবাসীর অনুরোধ সরেজমিন তদন্ত পূর্বক বিকল্প জায়গা দিয়ে যেন বিদ্যুৎ স্থাপন করা হয়। অন্যথায় তারাও বিকল্প চিন্তা করতে বাধ্য হবে বলে স্থানীয় সংবাদকর্মীদের জানান। গ্রামবাসীর মধ্যে শাহ আলম, রাকিবুল হাসান, আলী আকবর, জামাল হোছন, মোক্তার আহমদ, ফরিদুল আলম, মোঃ ইসলাম ও তাছলিমার বসতঘর এবং ৫ শতাধিক গাছ রয়েছে বলে এ প্রতিবেদককে জানান। বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ সুদৃষ্টি দিলেই মাজারে বিকল্প তথা পশ্চিম পাশ দিয়ে ৩টি খুঁটি স্থাপন করলে মাজারসহ বিভিন্ন জায়গায় বিদ্যুৎ চলে যাবে। তাই তদন্ত পূর্বক স্থাপিত ২/৩টি খুঁটি উপড়ে ফেলে বিকল্প সড়ক দিয়ে নতুন সংযোগ স্থাপনের জোর দাবী জানান এলাকাবাসী। বিষয়টি নিয়ে ঠিকাদার মানিকের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও না পাওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সর্বশেষ সংবাদ

রামুর ২ ইয়াবা ব্যবসায়ী ৩০ হাজার ইয়াবাসহ চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার

কক্সবাজার আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে প্যানেল পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হচ্ছেন আবদুর রহমান

স্যালুট লোকমান হাকিম মাস্টার

নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট জয়ের সুমধুর আবৃতির ভিডিও প্রকাশ

 প্রথম আলোয় সংবাদ প্রকাশ,  মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের সংবাদ সম্মেলন

চকরিয়া-পেকুয়াকে এগিয়ে নিতে সহযোগিতা চাই : চট্টগ্রামে এমপি জাফর আলম

উখিয়ার ভূমিদস্যু নুরুল হক মুন্সি আটক, জনমনে স্বস্তি

গর্জনিয়াতে সরকারী পাহাড় কেটে ভবন নির্মাণ

দুই প্যানেলের ৩৪ প্রার্থীর প্রচারণায় সরগরম আদালত প্রাঙ্গণ

বান্ধবীর বাসায় বেড়াতে গিয়ে ফেরেনি কক্সবাজার বায়তুশ শরফের ছাত্রী

ইঞ্জিনিয়ার শফিউল্লাহ ও কাউন্সিলরলের ভাইয়ের মৃত্যুতে মেয়র মুজিবসহ পৌর পরিষদের শোক

কাউন্সিলর আকতার কামালের ভাইয়ের মৃত্যুতে এমপি কাজলের শোক

খোদাভীতি সম্পন্ন মানুষ গড়তে নূরানী শিক্ষা বিপ্লব ছড়িয়ে দিতে হবে : ড. খালিদ হোসেন

রামুর মানব পাচারকারী চক্রের হোতা মনোহরী শর্মা কারাগারে

তালশাড়ী সানরাইজ পাবলিক স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

আল মাহমুদ ছিলেন মানবতাবাদী ও দেশপ্রেমিক কবি

উখিয়ায় কে পাচ্ছেন নৌকার টিকেট

ঈদগড়ে অভিনব কায়দায় কাঠ পাচারকালে ট্রাক আটক

কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-৮