এফ এম সুমন, পেকুয়া:
সৌদি আরবে নিখোজ হওয়া বাংলাদেশী প্রবাসী পেকুয়ার আইযুব আলীর মৃত দেহের সন্ধান পাওয়া গেছে। সোমবার ১০ ই সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের জিজান জেলার আম্মুক নামক জায়গায় তার লাশের সন্ধান মিলে। মৃত আইযুব আলী পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের নতুন ঘোনা এলাকার মৃত সাচি মিয়ার পুত্র। নিহত আইয়ুব আলী গত (২সেপ্টেম্বর) সৌদি আরবের আল বিরিক আম্মুখ নামক জায়গা থেকে নিখোঁজ হন। নিখোঁজের ৫ দিন পর শুক্রবার তার লাশের সন্ধান পাওয়া গেলে ও সৌদি কতৃপক্ষ আনুষ্ঠানিক ভাবে জানান ১০ই সেপ্টেম্বর। নিহতের ভাই ইউসুফ আলী অভিযোগ করেন, তার ভাইকে হত্যা করেছেন সৌদি আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা। তিনি তার ভাইয়ের হত্যার বিচার দাবী করেন। নিহতের পুত্র চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রুবেল বলেন, আমার বাবা নির্দোষ কেন আমার বাবাকে এভাবে হত্যা করা হলো? কেন তার লাশ গুম করার চেষ্টা করা হলো। এদিকে আইযুব আলীর মৃত দেহের সন্ধানে তার পরিবারে চলছে শোকের মাতম। পুরো পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্রম ব্যক্তির এভাবে চলে যাওয়া যেন কেউ মেনে নিতে পারছেন না। তার লাশের ছবি পরিবারের কাছে পৌঁছার পরপরঐ স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে সেখানকার পরিবেশ। যৌথ পরিবারের একমাত্র অবলম্বন ছিল এই আইয়ুব আলী। তার পরিবারে রয়েছে প্রায় ২৫ জন সদস্য সংখ্যা সবার জীবনে যেন মেনে এলো অন্ধকার। নিহতের একমাত্র ভাই ইউসুফ আলী ও প্রতিবন্ধি তাকে ও দেখাশুনা করতেন আইয়ুব আলী। তার মৃতুর খবরে পুরো এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া স্থানীয় প্রতিবেশিরা ছুটে এসেছেন তার ছবি দেখতে সবাই যেন তাদের পরিবারে কাউকে হারিয়েছেন। তারা বলেন কখনো কারো মনে আঘাত দেননি তিনি। সবসময় প্রতিবেশিদের খোজ খবর নিয়েছে, আপদে বিপদে সাহায্য সহযেগিতা করেছেন। কাউকে তিনি কখনো ফিরিয়ে দেননি। তার এঘটনায় সবাই মর্মাহত হয়েছেন। স্বজন সহ এলাকাবাসীর দাবী তাদের সন্তানকে শেষ বারের মতো দেখতে লাশ যেন দেশের মাঠিতে ফিরিয়ে আনার জন্য ব্যবস্থা করেন সরকার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •