প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ ও কুতুবদিয়ার রাসেল মাতবরের ওপেন চ্যালেঞ্জ


গত ০৭ আগস্ট ২০১৮ইং স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক হিমছড়ি, দৈনিক কক্সবাজার’৭১, দৈনিক ইনানী এবং অনলাইন নিউজ পোর্টাল কক্সবাজার নিউজ ডট কমে প্রকাশিত কুতুবদিয়ায় ইয়াবাসহ মাদক বিক্রেতা আটক শীর্ষক সংবাদ আমার দৃষ্টি গোচর হয়েছে। সংবাদের একাংশে আমার নামে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, উদ্দেশ্য প্রণোদিত, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। প্রকৃত পক্ষে আমি রাসেল মাতবর আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। কুতুবদিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সি:সহ-সভাপতির দায়িত্বে ছিলাম দীর্ঘদিন যাবত এবং আমার মালিকানাধীন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সাজেদা এন্টারপ্রাইজ, সাজেদা ম্যানশনসহ নানা ধরণের বৈধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত। সততা,সুনামকে সামনে রেখে আমি বৈধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠা পরিচালনা করে আসছি। কুতুবদিয়ায় বড়ঘোপ দ্বীনি প্রতিষ্ঠান মাদ্রাসা ও মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে সততা, সুনাম ও দক্ষতার সাথে পালন করে আসছি। এলাকায় আমি ভদ্র, অমায়িক ও সততার অন্যন নিদর্শন। কিন্তু কতিপয় মহল আমার সুনাম চরিতার্থ করার জন্য ইচ্ছাকৃত ভাবে উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে আমার সম্মান ক্ষুন্ন করার মত ঘৃণ্যতম অপপ্রচারে মেতে উঠেছে। এ মহলগুলোর এলাকায় আমার নিজ মালিকানাধীন বৈধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রতি কু-নজর পড়েছে। প্রকাশিত সংবাদে মাদক বিক্রেতার সাথে আমাকে যে, জড়ানো হয়েছে তা শাক দিয়ে মাছ ঢাকার সমান। ইচ্ছাকৃত ভাবে এ মহলগুলো তাদের উদ্দেশ্যকে হাসিল করার জন্য আমার বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। আমি রাসেল মাতবর কুতুবদিয়া ঐতিহ্যবাহী মাতবর বাড়ীর সন্তান, আমার দাদা মরহুম এরশাদ আলী মাতবর তার সুযোগ্য সন্তান আমার বাবা মরহুম আলহাজ্ব তাহের মাতবর এবং আমার জৈষ্ঠ্য চাচা এড: ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী হলেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি, সাবেক কক্সবাজার জেলা বারের সভাপতি এবং সাবেক কুতুবদিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান, বর্তমানে কুতুবদিয়ার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। প্রকৃতপক্ষে ঐতিহ্যবাহী মাতবর পরিবারের সন্তান হয়ে আমি কোন দিন ইয়াবা ক্রয় বিক্রয়ের সাথে সম্পৃক্ত হতে পারিনা। কারণ আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত সৈনিক এবং ত্যাগী কর্মী। মূলত: আমাদের পরিবারের ঐতিহ্যকে ধ্বংস করার জন্য এলাকর মানুষের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করতে কতিপয় মহলের গভীর ষড়যন্ত্র। সে ষড়যন্ত্রের বহি: প্রকাশ মাদক বিক্রেতার সাথে আমার নাম জড়িয়ে পত্রিকায় প্রকাশ। আমি ওপেন চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি। যদি কোন ব্যক্তি অথবা আমার বড়ঘোপ এলাকার মানুষ মাদক ক্রয় বিক্রয়ের সাথে আমার সম্পৃক্ততা পান তাহলে আপনারা যে শাস্তি দিবেন আমি তা মাথা পেতে নিব। যদি ষড়যন্ত্রকারীরা প্রমান করতে না পারে এবং আমার বিন্দুমাত্র সংশ্লিষ্টতা না থাকে তাহলে তার বিচার আমি আপনাদের উপর দিলাম। উক্ত প্রকাশিত সংবাদে একাংশের আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি সাংবাদিক ভাইদের যাচাই বাছাই করে প্রকৃত সত্য উদঘাটন করে বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশনের আহবান জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী

মো: রাসেল মাতবর

স্বত্ত্বাধিকারী

সাজেদা এন্টারপ্রাইজ ও সাজেদা ম্যানশন

বড়ঘোপ, কতুবদিয়া, কক্সবাজার।

সর্বশেষ সংবাদ

মৌসুমের শুরুতেই ডেঙ্গুর ‘কামড়’

স্ত্রীকে ‘উত্ত্যক্তের’ প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

মিয়ানমারের বিচারে আরও একধাপ এগোচ্ছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত

ইয়াবা ব্যবসার নিরাপদ স্থান রোহিঙ্গা ক্যাম্প!

অল্প বৃষ্টিতেই দুর্ভোগ, জলাবদ্ধতা নিরসনে তিন উপায় 

ফিউচার লাইফের আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবস পালিত

দারুল আরক্বমে সংবর্ধনা ও নবীন বরণ

একবার ভেবে দেখবেন কী !

কনস্টেবল স্বাস্থ্য পরীক্ষায় ৩৮৬ জনের বিপরীতে ৭৫৩ জন উত্তীর্ণ : বৃহস্পতিবার লিখিত পরীক্ষা

একটি সাদা কাফনের সফর নামা – (৭ম পর্ব)

হোপ ফাউন্ডেশনের ফিস্টুলা সেন্টারের অনুমোদনপত্র হস্তান্তর করলো কউক

অপরাধ দমনে শ্রেষ্ট অফিসার চকরিয়া থানার এএসআই আকবর মিয়া

জেলা মৎস্যজীবি শ্রমিকলীগের কমিটি গঠন

চকরিয়ায় আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবস পালিত

সন্ত্রাসীর সঙ্গে যুদ্ধ করেও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী

বিশ্ব বিবেক নাড়িয়ে দেওয়া আরেকটি ছবি

মাদক ঠেকাতে পাড়া-মহল্লায় প্রচারণা, ঘরে ঘরে হুশিয়ারি

‘ঈদগাহ উপজেলা’ গঠন প্রক্রিয়া শুরু

মাদকের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে : ডিসি কামাল

হ্নীলায় রাশেদ, ফাঁসিয়াখালীতে গিয়াস ও বড়ঘোপে কালাম মেম্বার