বাঁশখালীতে বেড়ে চলেছে হাতির তান্ডব

তাজুল ইসলাম পলাশ, চট্টগ্রাম:
চট্টগ্রাম উপজেলার বাঁশখালীতে বেড়ে চলেছে হাতির তান্ডব। একের পর এক হানা দিয়ে মানুষের বসতভিটা, ফসলিজমি, তছনছ করলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হচ্ছেনা কোন প্রদক্ষেপ। ফলে হাতির হামলা ও তান্ডবের শিকার পরিবারগুলো দুর্বিষহ জীবন যাপন করতে বাধ্য হচ্ছে। শুধু তাই হাতির আক্রমনের ভয়ে অনেকে গ্রাম ছেড়ে পার্শ্ববর্তী আতœীয় স্বজনের বাড়িতে আশ্রয়ও নিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, সন্ধ্যা পার হলেই পার্শ্ববতী পাহাড় থেকে নেমে আসে হাতির পাল। গত জুলাই থেকে আগস্ট মাসে সাধনপুর ইউনিয়নের বৈওগাঁও এলাকায় ১১টি এবং পুকুরিয়া ইউনিয়নের ৯টি বাড়িঘর তছনছ করে। আহত হয়েছেন শতাধিক। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো হলো মৃত ফয়জুল কবিরের পুত্র মাহবুব হোসেন ও মাওলানা জামাল, রয়ান আক্তার, মৃত বশির উল্লাহর পুত্র আহসানুল কবির ও রুহুল কবির ,রোশুনুজ্জামানের পুত্র জমির উদ্দিন,বদি আহমদের পুত্র রিদুয়ানুল হক, আক্তার হোসেনের স্ত্রী কনিকা আক্তার,নজির আহমদের পুত্র মো: হোসেন, আবুল কাসেমের পুত্র নুরুল আমিন, সামশু মিয়ার পুত্র মো: রহিম। এরপরও প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে দাবী এলাকাবাসীর। প্রতিনিয়ত পাহাড় থেকে হাতির পাল নেমে এসে বাড়িঘর ও ফসলী জমি তছনছ করে চলেছে। কিন্তু এগিয়ে আসছে না বনবিভাগসহ সংশ্লিষ্টরা, এমন অভিযোগ সাধারণ জনগণের। তারা জানান, ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য উপজেলা প্রশাসন ও বনবিভাগের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সুনির্দিষ্ট কোন দিক নির্দেশনা পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকি এ হাতির তান্ডব থেকে বাঁচতে সাধনপুরের সহ¯্রাধিক লোকজন মানববন্ধন করে প্রশাসনকে স্মারকলিপি প্রদান করেছে। তবুও প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

এর আগে ২০১৭ সালে ১৯ নভেম্বর বন্য হাতির আক্রমণে সাধনপুর ইউনিয়নের নতুনপাড়া গ্রামের মিনু আরা বেগম (৪৫) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়। তিনি একই গ্রামের দুলা মিয়ার স্ত্রি।

পুকুরিয়া এলাকার বাসিন্দা হামিদ হোসাইন জানান, গত কয়েক মাস ধরে হাতিরা দল বেধেঁ সব কিছু নষ্ট করে চলে যায়। গাছ গাছারি ভেঙ্গে দিয়ে যায়। জমিনের ধান খেয়ে ফেলে। তাই রাতে তেমন একটা ঘুম যাওয়া হয় না। আমরা বেশ কয়েকজন মিলে রাতে হাতি পাহাড়া দিই। সাধনপুর ইউনিয়নের স্থানীয় বাসিন্দা আমিনুর রহমান জানান, আমাদের এলকার মানুষের রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। কেউ রাতে ঠিক মতো ঘুমাই না। সবাই ভয়ে থাকে। আমরা সারা রাতা জেগে হাতি পাহারা দিচ্ছি। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত দুই মাস ধরে শুধু হাতির আক্রমন হচ্ছে। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষে থেকে এখনো পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

এ ব্যাপারে সাধনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দীন চৌধুরী খোকা বলেন, চলতি মাসে ৩/৪ বার হাতি সাধনপুরের বৈলগাওঁ,বাণীগ্রাম,কচুজুম থেকে শুরু করে সর্বত্র তছনছ করে ,সাধারন জনগন সীমাহীন ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। তিনি আরো বলেন বিগত দিন গুলোতে হাতির হামলায় বেশ কয়েকজন প্রান হারিয়েছে । তিনি বাশঁখালী উপজেলা প্রশাসন ও বনবিভাগের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে কিভাবে হাতিকে বনে ফিরিয়ে নেওয়া যায় সে ব্যাপারে প্রশাসন সহ সংশিষ্টদের সহযোগিতা কামনা করেন ।

পুকুরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আহসাব উদ্দিন বলেন, বারবার হাতির হামলা ও তান্ডবের শিকার হচ্ছে পুকুরিয়ার নতুনপাড়া, চানঁপুর, সেন্টারপাড়া, চন্দ্রপুর, আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন এলাকায় বিগত দিনে অর্ধশতাধিক বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে ক্ষতিগ্রস্থদের পরিষদের পক্ষ থেকে সামান্য ভিজিএফ চাল ছাড়া তেমন সহযোগিতা করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার বলেন, ‘ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা করে তাদের সহযোগিতার জন্য পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেছি । বিষয়টি নিয়ে সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বরত মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে কথা বলেছেন।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

‘মাশরুম একটি অসীম সম্ভাবনাময় ফসল’

তথ্য প্রযুক্তি’র সেবা সাধারণের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে সরকার বদ্ধ পরিকর : শফিউল আলম

চট্টগ্রামে জলসা মার্কেটের ছাদে ২ কিশোরী ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬

কোটালীপাড়ায় নিজ জমিতে অবরুদ্ধ ৬১ পরিবার : মই বেয়ে যাদের যাতায়াত

জামায়াত নেতা শামসুল ইসলামকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ ও মুক্তি দাবী

দুর্ঘটনারোধে সচেতনতার বিকল্প নেই : ইলিয়াস কাঞ্চন

Google looking to future after 20 years of search

ইবাদত-বন্দেগিতে মানুষ যে ভুল করে

শেখ হাসিনাকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ বি. চৌধুরীর

পর্যটকবান্ধব আদর্শ রাঙামাটি শহর গড়তে জেলা প্রশাসনের অভিযান চলছে

জামায়াত নেতা শামসুল ইসলামকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ ও মুক্তি দাবী

ঈদগাঁও থেকে ৭ হাজার ইয়াবাসহ আটক ৩, বাস জব্দ

জুতায় লুকিয়ে পাচারের পথে ৩১০০ ইয়াবাসহ যুবক আটক

জাতিসংঘের হস্তক্ষেপের কোনও অধিকার নেই: মিয়ানমার সেনাপ্রধান

বৃহস্পতিবার ঢাকায় বিএনপির সমাবেশ

দাঁড়িয়ে প্রস্রাব করা কি শুধু ইসলামেই নিষেধ?

খুটাখালীর ব্যবসায়ী নুরুল ইসলামের ইন্তেকাল

যেভাবে ব্রাশ করলে দাঁতের ক্ষতি হয়

আমি সৌভাগ্যবান যে তোমাকে পেয়েছি : বিবাহবার্ষিকীতে মুশফিক

মালদ্বীপের বিতর্কিত নির্বাচনে বিরোধী নেতার জয়