cbn  

ইমাম খাইর, সিবিএন:
বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর কারণেই চকরিয়া মালুমঘাট ছগিরশাহকাটা দরগাহ গেইট এলাকায় বুধবার (২৯ আগষ্ট) দুপুরে পাজেরো-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।
এতে ঘটনাস্থলে মারা যায় পাভেল হোসেন সবুজ (১৮)। সে মোটরসাইকেল চালক ছিল।
পাভেল চকরিয়া পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের দিগরপানখালী এলাকার জানে আলমের ছেলে এবং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।
একইদিন (বুধবার) দিবাগত রাত পৌনে ১০টার দিকে চট্টগ্রাম ম্যাক্স হাসপাতাল চিকিৎসারত অবস্থায় মারা যায় নাবিউল আরফাত। সে একই  এলাকার মৃত শাহ আলমের ছেলে এবং ওয়ার্ড ছাত্র লীগের সহসভাপতি।
দুর্ঘটনাস্থলের এক বাসিন্দা সিবিএনকে জানান, দুই যুবক একটি লাল রঙের মোটর সাইকেলে করে বেপরোয়া গতিতে চকরিয়ার দিকে যাচ্ছিল। কক্সবাজারের দিক থেকে আসছিল কালো রঙের পাজেরো গাড়ি।
একই দিকে থেকে আসা একটি সাদা রঙের কার গাড়িকে ওভারটেক করে যাওয়ার পথে বিপরীত দিকে (চকরিয়া টু কক্সবাজার) আসা পজেরোর সামনে গিয়ে পড়ে মোটরসাইকেল। মোটরসাইকেলটি নিজের সাইড ফেলে অন্য সাইডে যাওয়ায় মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে।
মূলতঃ অনিয়ন্ত্রিত মোটরসাইকেল চালানোর কারণেই এমন ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।
অন্যদিকে ঘটনাস্থলে পড়ে থাকা দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ী দু’টোর অবস্থান দেখেও ঘটনা সহজেই অনুমেয়।
এ বিষয়ে দুর্ঘটনাক্রান্ত পাজেরোর যাত্রী কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও চকরিয়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু বলেন, মোটরসাইকেলটি বেপরোয়া গতিতে চলার কারণে কণ্ট্রোল করতে না পারায় এ ঘটনা ঘটে।

হয়তো এই হাসিই শেষ হাসি ছিল নিহত দুই বন্ধু নাবিউল আরফাত ও পাভেল হোসেন সবুজের।
কে জানতো সড়কেই তাদের মৃত্যু হবে?

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, চকরিয়া থেকে কক্সবাজারমুখী সড়কে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটুর পাজারো জিপ গাড়িতে বিপরীত দিকে আসা ছাত্রলীগ নেতাদের মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন ছাত্রলীগ নেতা পাভেল রহমান সবুজ। গুরুতর আহত অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতা নাবিউল আরাফাতকে চট্টগ্রাম ম্যাক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে রাত পৌনে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া পৌর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ওয়ালিদ মিল্টন।
চকরিয়া মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক আলমগীর হোসেন জানান, মালুমঘাট ছগিরশাহকাটা এলাকায় বিপরীত দিকে থেকে আসা মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে একজন প্রাণ হারায়। রাতে চট্টগ্রামে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রাণ হারায় আরেকজন। পাজারো গাড়িটি জব্দ করা হলেও চালক পালিয়ে গেছে বলে জানান পুলিশের এই পরিদর্শক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •