ইমাম খাইর, সিবিএন:
২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে সব মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার আহবান জানিয়েছেন কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র ও রোগীকল্যাণ সমিতির সহসভাপতি মুজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, সরকার স্বাস্থ্যসেবা খাতে প্রচুর বিনিয়োগ করছে। বিভিন্ন বেসরকারী সংস্থা সহায়তায় এগিয়ে আসছে। কোন মানুষ যাতে চিকিৎসা নিতে গিয়ে হয়রানীর শিকার না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। গরীব-অসহায় রোগীদের গুরুত্ব দিতে হবে।
বুধবার (২৯ আগষ্ট) সকালে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের কনফারেন্স হলে রোগীকল্যাণ সমিতির কার্যকরী কমিটির ত্রৈমাসিক সভায় মেয়র মুজিবুর রহমান কথাগুলো বলেন।
তিনি বলেন, কক্সবাজার পৌর এলাকায় প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে অন্তত ২ ঘন্টা গণসচেতনতামূলক মাইকিং করা হবে। মানুষকে নাগরিক অধিকার সম্পর্কে জানানো হবে। শীঘ্রই এ কর্মসুচি শুরু করা হবে।
সমিতির সভাপতি ও সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ পুচনুর সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। রোগীকল্যাণ সমিতির এই সভায় প্রথম যোগদান করায় নবনির্বাচিত পৌরপিতা সমিতির সহসভাপতি (পদাধিকার বলে) মুজিবুর রহমানের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে প্রস্তাব গৃহীত হয়। সভায় মুজিবুর রহমানকে সমিতির ‘আজীবন সদস্য’ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।
যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জেবর মুলক এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন- সহসভাপতি আলহাজ্ব এম এম সিরাজুল ইসলাম, কার্যকরী কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা জাফর উল্লাহ নুরী, এডভোকেট আ জ ম মঈন উদ্দিন, সাবেক পৌর কমিশনার আবু জাফর সিদ্দিকী, প্রকৌশলী কানন পাল, রবুয়া বেগম। উপস্থিত ছিলেন এসআলমের কক্সবাজার অফিস ইনচার্জ মুহাম্মদ নুরুল আলম, শ্রমিক নেতা শফিউল্লাহ্ আনসারী প্রমুখ।
সভায় আয় ব্যায়ের প্রতিবেদন পেশ ও অনুমোদন, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের নিরীক্ষা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত গ্রহণ, সমিতির অবস্থা ও কার্যক্রম সংক্রান্ত আলোচনা হয়। এতে রোগীকল্যাণ সমিতিতে নতুন সদস্যভুক্তির সিদ্ধান্ত হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •