‘সৌদিতে গৃহকর্মী নির্যাতন পরিস্থিতি ভয়াবহ নয়’

ডেস্ক নিউজ:
গত ২০ মে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সৌদি ফেরত কয়েকজন। সৌদি আরবের আলখেল্লা পরা পাষণ্ড মালিকদের অসভ্য আর অমানবিক আচরণ সইতে না পেরে দেশে ফিরে আসেন তারা
সৌদি আরবে বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের যৌন ও শারীরিক নির্যাতন পরিস্থিতি মোটেই ভয়াবহ নয় বলে মন্তব্য করেছেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসি।

তিনি বলেছেন, বর্তমানে সৌদি আরবে দুই লক্ষাধিক গৃহকর্মী রয়েছেন। তাদের মধ্যে মাত্র সাত হাজার দেশে ফিরে গেছেন। তাদের কেউ কেউ শারীরিক আবার কেউ কেউ যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। তবে দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে যেভাবে ভয়াবহভাবে নির্যাতনের কথা উল্লেখ করা হচ্ছে, পরিস্থিতি তেমন খারাপ নয়।

মক্কায় হজ মিশনে জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপকালে রাষ্ট্রদূত হিসেবে চার বছরের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এসব কথা বলেন।

‘সৌদি নাগরিকরা বাংলাদেশ থেকে গৃহকর্মী নিয়ে আসতে প্রতিজনের জন্য সরকারকে দুই হাজার মার্কিন ডলার করে পরিশোধ করে। স্বভাবতই তারা গৃহকর্মীদের কাছ থেকে ভালো কাজ আশা করেন। কিন্তু গৃহকর্মী হিসেবে যারা আসেন, তাদের বেশিরভাগই আরবি ভাষা না শিখে ও গৃহকর্মে কী ধরনের কাজ করতে হবে সে সম্পর্কে প্রশিক্ষণ গ্রহণ না করে আসেন। নতুন পরিবেশ, আবহাওয়া, লোকজন ইত্যাদি দেখে গৃহকর্মীরা ঘাবড়ে যান। ফলে গৃহকর্তা-কর্ত্রীরা যেমনটা আশা করেন গৃহকর্মীরা সেই প্রত্যাশা অনুসারে কাজ করতে পারেন না। তখন তাদের ওপর শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়,’- বলেন রাষ্ট্রদূত।

এ পর্যন্ত কত সংখ্যক গৃহকর্মী যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ সংখ্যা ৫০০ হতে পারে। তবে যৌন নির্যাতন একটিও কাম্য নয়। নির্যাতিত নারীদের দূতাবাসের শেল্টারে রেখে দেশে ফেরত পাঠানো হয়।

গৃহকর্মী পাঠানোর ক্ষেত্রে আরবি ভাষা শিক্ষা ও গৃহকর্ম সম্পর্কে প্রশিক্ষণ গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

সর্বশেষ সংবাদ

যারা ফেসঅ্যাপে বুড়ো হয়েছেন তাদের জন্য দু:সংবাদ

সেতু নির্মাণের আড়াই বছরেও হয়নি পাকা সংযোগ সড়ক

লামায় বন্যা আক্রান্তদের সেবায় হোপ ফাউন্ডেশনের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প

কক্সবাজার থেকে বছরে ৫০০ কোটি টাকা কর আদায় সম্ভব

রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত শুরু করবে আইসিসি

দুর্নীতির অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী আব্বাসি গ্রেফতার

তুরস্কে বাস দুর্ঘটনায় বাংলাদেশিসহ নিহত ১৫

প্রধানমন্ত্রীর এটুআই প্রোগ্রামের জেলা এম্বাসেডর পেকুয়ার আছহাব উদ্দিন

শহরের সড়ক-উপসড়কের বেহালদশা

মাদকের সাথে জড়িত কেউ রেহাই পাবে না

কক্সবাজারে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

পশুর জন্য ভালবাসা

চকরিয়ায় দু’দফা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ৪০ হাজার বসতঘর , ভেসে গেছে ৫৬ কোটি টাকার মাছ

বিদেশ সফর শেষে রামুতে শ্রেষ্ঠ চেয়াারম্যান ফরিদুল আলম সংবর্ধিত

অক্টোবরের পর রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত শুরু করতে চায় আইসিসি

ফাঁসিয়াখালী ইউপি’র উপ নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু হবে : সাঈদী’কে ইসি কবিতা খানম

টেকনাফের যুবদল নেতা রাশেদের মৃত্যুতে সাবেক এমপি শাহজাহান চৌধুরীর শোক

চিকিৎসার জন্য রফিকুল ইসলাম মিয়াকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়েছে

শিশুর মাথা ব্যাগে নিয়ে মদ খেতে গিয়েছিল সেই যুবক

সব রেকর্ড ভেঙেছে যমুনা-তিস্তার পানি