এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া

চকরিয়া মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আসফিকে যশোরের কোতয়ালী থানা পুলিশ উদ্ধার করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালের দিকে তাকে উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে সে যশোরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিখোঁজের তিনদিন পর পুলিশি তৎপরতায় তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

উদ্ধার হওয়া ছাত্রলীগ নেতা আসফি চৌধুরী চকরিয়া মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এবং উপজেলার ঢেমুশিয়ার মৃত আমিরুল মোস্তাফা চৌধুরীর ছেলে। পাশাপাশি তিনি চকরিয়ার সামাজিক সংগঠন স্বাধীন মঞ্চের দায়িত্বে নিয়োজিত। গত সোমবার রাত ৯টা থেকে ছাত্রলীগ নেতা আসফি চৌধুরী নিখোঁজ হয়।

এঘটনায় মঙ্গলবার পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগ পাওয়ার পর থেকেই চকরিয়া থানা পুলিশের পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াছির আরাফাতের নেতৃত্বে একাধিক পুলিশ ফোর্স তাকে উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াসির আরাফাত বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে ছাত্রলীগ নেতা আসফিকে যশোরের কোতয়ালী থানা এলাকায় কে বা কারা রাস্তায় ফেলে রেখে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন তাকে অসুস্থ অবস্থায় দেখে একটি রিক্সায় করে কোতয়ালী থানায় পাঠায়। পরে যশোর থানা পুলিশ আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আসফিকে উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত হয়।

তিনি আরো বলেন, ছাত্রলীগ নেতা আসফি অসুস্থ। তাকে যশোরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তাই এ মুহুর্ত্বে তার কাছ থেকে কোন কিছু জিজ্ঞাসাবাদ করা সম্ভব হচ্ছেনা। তিনি সুস্থ হলেই জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা কি জানা যাবে।

পরিবার সুত্রে জানা গেছে, আসফির সাথে একই এলাকার মৌলভী জামাল হোসেনের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। একাধিকবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জমির বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চালালেও জামায়াত নেতা মৌলভী জামাল ওই মীমাংসা থেকে বিরত থাকে। এমনকি আসফিকে নানা ধরনের হুমকি দেয় বলেও আসফি তার বন্ধুদের জানিয়েছেন।

সর্বশেষ গত সোমবার রাত ৯টার দিকে আসফি চকরিয়ার ইলিশিয়া বাজার থেকে একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সা নিয়ে চিরিংগা গেলে এরপর থেকে তার আর কোন খোঁজ মিলেনি। পরে পুলিশি তৎপরতায় বৃহস্পতিবার সকালে যশোরের কোতয়ালী থানায় আসফি অসুস্থ শরীর নিয়ে উপস্থিত হলে তাকে উদ্ধারের বিষয়টি জানাজানি হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •