এম.মনছুর আলম, চকরিয়া (কক্সবাজার) :

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আসফি চৌধুরী (২৯) নামের এক নেতা ‘নিখোঁজ’ হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার রাত ৯টার পর থেকে ছাত্রলীগ নেতা আসফি চৌধুরী নিখোঁজ হলেও আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত তার খোঁজ মেলেনি। এ ঘটনায় (২১আগস্ট) মঙ্গলবার সকালে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। নিখোঁজ আসফি চৌধুরী চকরিয়া মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি এবং উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের মৃত আমিরুল মোস্তাফা চৌধুরীর ছেলে।

জানা গেছে, আসফির সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে একই এলাকার জামায়াত নেতা মৌলভী জামাল হোসেনের বিরোধ চলছিল। এ বিরোধ মীমাংসার জন্য সোমবার বিকাল ৪টার দিকে ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রুস্তম আলী আসফিকে ফোন করে তার সঙ্গে দেখা করতে বলেন। সোমবার রাত ৯টার দিকে আসফি উপজেলার ইলিশিয়া বাজার থেকে একটি সিএনজি নিয়ে চিরিংগার দিকে গিয়েছেন বলে স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান রুস্তম আলী বলেন, ‘জমি নিয়ে আসফি ও মৌলভী জামাল হোসেনের সাথে বিরোধ চলে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। ওই বিরোধ মীমাংসার জন্য সোমবার বিকেল ৪টার দিকে আসফিকে ফোন করে আমার সাথে দেখা করতে বলি। কিন্তু ওইদিন আসফি আর আমার সাথে দেখা করেনি।’

মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হুমায়ন কবির চৌধুরী বলেন, ‘আসফি কয়েকদিন আগে আমাকে ফোন করে বলে কে বা কারা তাকে নানা ধরনের হুমকি দিচ্ছে। কিন্তু কারা হুমকি দিচ্ছে সেটা পরিস্কার করেনি। আমি কথাগুলো ফোনে না বলে সাক্ষাতে বলার জন্য আসফিকে বলেছিলাম।’

হুমায়ন কবির আরও বলেন, ‘সোমবার রাত ৯টার দিকে আসফি একা ইলিশিয়া বাজার থেকে একটি সিএনজি চালিত অটোরিক্সা নিয়ে চিরিংগার দিকে গিয়েছে বলে স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে শুনেছি। আমার মনে হয়, মোবাইলে ওই সময় সে কার কার সাথে কথা বলেছে তা বের করলে বিষয়টি জানা যাবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াছির আরাফাত বলেন, ‘এ ঘটনায় আসফির পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আসফির অবস্থান নিশ্চিত করতে তার মোবাইল ট্র্যাকিং করা হচ্ছে। পাশাপাশি পুলিশের একাধিক টিম তার খোঁজে মাঠে নেমেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •