বিশেষ প্রতিবেদক:
ভারতের কুলতলী থানায় আটক রয়েছেন বলে জানা গেছে কুতুবদিয়া উপজেলার একটি মাছ ধরার ট্রলারের ১৭ মাঝিমল্লা । শনিবার (১৮ আগস্ট) কুতুবদিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিদারুল ফেরদৌস বিষয়টি জানিয়েছেন।

ভারতে আটক জেলেরা হলেন- মামুনুর রশীদ, মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, নুরুচ্ছফা, আবদুল শুক্কুর, আবদুল করিম, রফিক উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন, আবদুল মোনাফ, নুরুল আবছার, রাহমত উল্লাহ, মনির উল্লাহ, আবদুল মালেক, নুরুল হোছাইন, রবিউল বাশার, সাইফুল ইসলাম, মুহাম্মদ এরফান ও সাদ্দাম হোছাইন। আটকরা সবাই কুতুবদিয়ার লেমশীখালী ও উত্তর ধুরুং গ্রামের বাসিন্দা।

দিদারুল ফেরদৌস জানান, ‘এফবি আবদুল জব্বার শাহ্’ ট্রলারটির ১৭ মাঝিমল্লা ভারতে আটক রয়েছেন। ১৪ আগস্ট এ ব্যাপারে ট্রলার মালিক মোজ্জাম্মেল জিডি করেছেন। এর আগে ৮ আগস্ট সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ট্রলারটি ভারতের জলসীমায় ডুকে পড়ে। পরে ভারতীয় জেলেরা গভীর সমুদ্র থেকে উদ্ধার করে তাদের কিনারায় নিয়ে যান। সেখানে তাদের আটক করে ভারতীয় পুলিশ।

এ বিষয়ে ট্রলার মালিক মোজাম্মেল হক বলেন, ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে স্রোতের টানে ভারতীয় জলসীমায় প্রবেশ করে। এরপর ভারতীয় জেলেদের সহযোগিতায় ভারতের স্থলভাগে পৌঁছে ট্রলারটি। পরে ভারতীয় পুলিশ ট্রলারের ১৭ মাঝিমল্লাকে আটক করে। ১৪ আগস্ট ভারতীয় নৌকা মালিক লাল মোহন দাশ কল করে আটকের বিষয়টি জানিয়েছেন।

কুতুবদিয়া থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌস আরও বলেন, জিডি পাওয়ার পর নিয়ম অনুয়ায়ী বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •