মেয়র মকছুদ মিয়ার ছেলে ইয়াবাসহ আটকে সমালোচনা তুঙ্গে

বিশেষ প্রতিবেদক:
ঢাকায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ সিন্ডিকেটের সাথে মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকছুদ মিয়ার বড়পুত্র মিরাজ উদ্দিন নিশান (২১) আটকের ঘটনায় কক্সবাজার জেলাজুড়ে তোলপাড় চলছে। সৃষ্টি হয়েছে চরম বিরূপ প্রতিক্রিয়া। এই নিয়ে আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তিও ক্ষুন্ন হয়েছে বলেও দাবি করেছে দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। এঘটনায় তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। একই সাথে শীর্ষ রাজাকারের পুত্র হয়ে মকছুদ মিয়াকে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদ এবং দলীয় মনোনয়ন দেয়া নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ বিভিন্নভাবে এই নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছে।

১৫ আগস্ট ঢাকার এ্যালিফ্যান্ট রোড এলাকা থেকে মকছুদ মিয়ার ছেলেসহ সিন্ডিকেটের আরো পাঁচজনকে ২ লাখ ৭ হাজার ১০০ পিস ইয়াবা এবং মাদক বিক্রির ৭ কোটি ২৪ লাখ ৮৫ হাজার টাকাসহ আটক করতে সক্ষম হয় র‌্যাব। তবে ১৬ আগস্ট র‌্যাব তা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রকাশ করেন। এ সংক্রান্ত সংবাদ অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশ হলে সাথে সাথে ভাইরাল হয়ে যায়। তা কক্সবাজারের স্থানীয় অনলাইন ও প্রিন্ট সংবাদ মাধ্যম এবং ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধমে প্রকাশ হলে সব স্তরের মানুষ সংবাদটি জেনে যায়। এতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ সব স্তরের মানুষের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে মহেশখালী ও কক্সবাজারে এক মারাত্মক বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। এই ঘটনাকে ইস্যু করে  মকছুদ মিয়াকে আওয়ামী লীগের জেলা ও পৌরসভায় গুরুত্বপূর্ণ পদে পদায়ন এবং পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেয়ার ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নেতাকর্মীরা বলেছেন, মকছুদ মিয়া অঢেল কালো টাকার মালিক। সেই কালো টাকা দিয়ে আওয়ামী লীগে মহেশখালী পৌরসভার সভাপতির পদ ভাগিয়ে নেয়। শুধু তাই নয়; লবিং করে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্যও হয়েছেন। সেই ক্ষমতা ব্যবহার করে মকছুদ মিয়ার পুত্র ইয়াবার ‘মাফিয়া’ চক্রের সদস্য হয়ে ইয়াবা ব্যবসা করেছে। একই সাথে রাজাকার পুত্র হয়ে মকছুদ মিয়া সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাত পাওয়ার ঘটনাটি সমালোচনায় যোগ হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এক সময় বিএনপির রাজনীতি করতো মকছুদ মিয়া। মুখোশ পাল্টে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে ক্রমান্বয়ে নানা অপকৌশলে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদ গ্রাস করে নিয়েছেন তিনি। তিনি গত ১০ বছরের বেশি সময় ধরে মহেশখালী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি-আহ্বায়ক হয়ে রয়েছেন। ত্যাগী ও প্রকৃত নেতাদের পদ থেকে বঞ্চিত করে পৌর আওয়ামী লীগকে তিনি ব্যক্তিগত দলের মতো চালাচ্ছেন বলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের অভিযোগ। মহেশখালী পৌরসভায় তিনি এখন অঘোষিত রাজার মতো শাসন চালাচ্ছেন দাবি অনেকের।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড. সিরাজুল মোস্তফা বলেন, ‘গত তিন দিন ধরে আমি শোক দিবসের কর্মসূচী নিয়ে খুব ব্যস্ত আছি। সবার মতো আমিও শুনেছি মকছুদ মিয়ার ছেলে ইয়াবাসহ আটক হয়েছে। এটা দলীয় বিষয় নয়, তাই আমি এটা নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে পারবো না।’

প্রধামন্ত্রীর সাথে সাক্ষাসঙ্গী হওয়া প্রসঙ্গে এড. সিরাজুল মোস্তফা বলেন, ‘সে মুজিবের সাথে গেছে। কিন্তু মুজিব মকছুদ মিয়াকে স্পেশাল ভাবে নিয়ে যায়নি। ওই সাক্ষাত দলে অনেকে গেছে।’

সর্বশেষ সংবাদ

এবার খুরুশ্কুল আশ্রয়ণ প্রকল্পের সড়কের জমিতে ভবন নির্মাণ

মাতামুহুরী ব্রীজে ফের দেবে গেছে,  দূর্ঘটনার আশঙ্কা

চকরিয়ায় মাংসের মূল্য নির্ধারণ করলেন প্রশাসন

ভালুকিয়া যুব কল্যাণ সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাশেমের অকাল মৃত্যু

সব ধর্মের অনুসারীদের নিজ ধর্ম পালনের সমান সুযোগ নিশ্চিত করেছে সরকার-ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

শহরের বায়তুশ শরফ এলাকা থেকে ৪ দিন ধরে কন্যা শিশু নিখোঁজ

খরুলিয়ায় প্রবাসীর জমি দখলের অভিযোগ, থানায় মামলা

সীতাকুণ্ডে কক্সবাজারের ‘ইয়াবাপ্রেমী’ দুই প্রেমিক যুগল আটক,২০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

‘ধারালো দা’সহ আটক হামলাকারীর বিরুদ্ধে মামলা নেয়নি পুলিশ’

স্বপ্নজালের জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে মানববন্ধন

লামায় প্রান্তিক কৃষকের তামাক লুটের অভিযোগ, মারধরে আহত ৭

ঈদগাঁও বাজারে শবে বরাত ও রোজাকে পুঁজি করে ব্যবসায়ীদের ফায়দা লুটার চেষ্টা!

২৭ বছরের প্রেমিকের টানে বাংলাদেশে ৫২ বছরের মার্কিন নারী

প্রশ্নপত্রে পর্নোতারকার নাম দেয়া সেই শিক্ষক বরখাস্ত

ড. আল্লামা জসিম উদ্দীন নদভী বিদগ্ধ ইসলামী শিক্ষাবিদ ও উদার মনের মানুষ ছিলেন

খালেদার মুক্তির দাবিতে বিএনপি হঠাৎ সক্রিয় কেন?

পেকুয়ায় চিংড়িঘেরের বাঁধ কেটে মাছ লুট

ইউপিডিএফ’র হয়ে চাঁদা আদায়কালে ৬লক্ষাধিক টাকাসহ কাঠ ব্যবসায়ি আটক

সমবায় নক্ষত্রের প্রয়াণ