এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:

চকরিয়ায় ছোট বাচ্চাদের কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে  দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষে মহিলাসহ অন্তত ৬জন গুরুতর আহত হয়েছেন। স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার (১৫আগস্ট) দুপুর ১১টার দিকে উপজেলার বিএমচর ইউনিয়নস্থ ৬নম্বর ওয়ার্ডের পূর্ব পাহাড়িয়া পাড়া এলাকায় এ সংর্ঘের ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, বিএমচর ইউনিয়নের পূর্ব পাহাড়িয়া এলাকার আলী আহমদের পুত্র নুরুল ইসলাম মনুর ছোট ভাগিনার সাথে একই মৃত মোস্তাক আহমদের পুত্র রমিজ উদ্দিনের পরিবারের ছোট এক শিশুর কাটাকাটি নিয়ে ঝগড়া সৃষ্টি হয়।এ ঘটনা জের ধরে নুরুল ইসলাম মনু ও তার আত্বীয় সালাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে ৮-১০জন দূর্বৃত্তরা ধারালো দেশীয় তৈরি অস্ত্রদিয়ে অতর্কিত ভাবে রমিজ উদ্দিন ও তার পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে ৪ জনকে কুপিয়ে আহত করা হলে এতে দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সৃষ্ট বিরোধের ঘটনায় মহিলাসহ অন্তত ৯জন গুরুতর হয়। আহত ব্যক্তিরা হলেন, পাহাড়িয়া পাড়া এলাকার মৃত মোস্তাক আহমদের পুত্র রমিজ উদ্দিন (৪০) তার ভাই জুলহাস (২৩) মো.আজিজ (৩৫) তাদের ছোট বোন শরমিন আক্তার(১৬) ও রিফা আক্তার (১৮)।এছাড়াও আহত হয়েছেন একই এলাকার আলী আহমদের পুত্র নুরুল ইসলাম মনু (৩৫) তার ভাই সালাহ উদ্দিনসহ দুইজন ব্যক্তি।

ঘটনায় আহত রমিজ উদ্দিন জানান, তার বসতভিটার সীমানা নিয়েও একই এলাকার আলী আহমদের পুত্র নুরুল ইসলাম মনু গংয়ের লোকজনের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। পূর্বশত্রুতার জের ও বুধবার বাচ্চাদের তুচ্চ ঘটনা নিয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। এতে আমার পরিবারের চার ভাই-বোনকে ধারালো অস্ত্রদিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।এনিয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান।

অপরদিকে নুরুল ইসলাম মনু অভিযোগ করেছেন, ওইসময় প্রতিপক্ষ রমিজের লোকজন এসে আমাদের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়ে হামলা চালায়।এসময় তাদের হামলায় আমাকে ও আমার ভগ্নিপতিসহ তিনজনকে কুপিয়ে তারা আহত করেন।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ রখম ঘটনার ব্যাপার নিয়ে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ঘটনাটি তদন্ত পূর্বক পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •