এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া :

চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাট রিংভং দক্ষিণ পাহাড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষিকা হুমায়রা আজাদী বাদি হয়ে কক্সবাজারের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে দায়ের করা মামলায় ( নং-১৭৮/১৭) অবশেষে হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম।

গতকাল সোমবার ১৩ আগস্ট হাইকোর্টের বিজ্ঞ বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এসএম কুদ্দুস জামান এর সমন্বয়ে গঠিত দ্বৈত বেঞ্চ মামলাটির প্রাথমিক শুনানী শেষে তাকে জামিন দিয়েছেন। আদালতে চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলমের পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ও সাবেক আইন মন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু। ওই সময় আদালতে তাকে সহযোগিতা করেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শামীম খান।

উল্লেখ্য যে, গত ৮ আগস্ট ওই মামলায় কক্সবাজারের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক এএইচএম মাহমুদুর রহমান মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদনের শুনানী শেষে চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন।

২০১৭ সালের ৩১ জানুয়ারী চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলমসহ তিনজনের বিরুদ্ধে হুমায়রা আজাদী আদালতে মামলাটি করেন। আদালতের নির্দেশে একই বছরের ৩০ মার্চ মামলাটি তদন্তপূর্বক আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন তৎকালীন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ আলী হোসেন। তদন্ত কর্মকর্তা চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলমসহ বিবাদিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অসত্য বলে আদালতের কাছে তুলে ধরেন তদন্ত প্রতিবেদনে।

প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে আপত্তি তুল পরবর্তীতে ওইবছরের ২২ মে আদালতে নারাজি দেন হুমায়রা আজাদী। দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ১৪ মাস পর গত ৮ আগষ্ট ওই নারাজি শুনানী করেন আদালতের বিচারক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •