মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু,নাইক্ষ্যংছড়িঃ
নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমে কক্সবাজার-৩৪ বিজিবি’র অধীনস্থ ঘুমধুম সীমান্ত ফাঁড়ী বিজিবি’র বেতবনিয়া চেকপোস্ট’র জোয়ানরা ১০০৫০ পিস ইয়াবাসহ ১ এক পাচারকারীকে আটক করেছে। এসময় মাদক বহনের দায়ে একটি সিএনজি অটোরিকশাও জব্দ করেছে।

বিজিবি সুত্রে জানা যায়, ১২ জুলাই রবিবার ভোর সকাল ৬ টায় তুমব্রু সীমান্ত থেকে ছেড়ে আসা সিএনজি অটোরিকশা (নাম্বার কক্সবাজার-থ-১১-২০৫৩) গাড়ীটি বেতবনিয়া বাজারস্থ বিজিবি চেকপোস্টে পৌছলে কর্তব্যরত ঘুমধুম সীমান্ত ফাঁড়ী বিজিবি’র নায়েব সুবেদার রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল বিজিবি জোয়ান চ্যালেঞ্জ পুর্বক তল্লাসী চালায়।

এসময় সিএনজি অটোরিকশায় অভিনব কায়দায় লোকানো প্লাস্টিক প্যাকেটে থাকা ১০০৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। ইয়াবা বহনে জড়িত সিএনজি চালক ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা উত্তর পাড়ার মৃত সিদ্দিক আহমদের ছেলে শামসুল আলম কে আটক এবং সিএনজি অটোরিকশা জব্দ করা হয়।

ইয়াবাসহ আটক ব্যক্তি, জব্দ করা অটোরিকশার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় ২ জন পলাতক সহ ৩ জনের নামে মামলা রুজু করেছে। আটক ব্যক্তিকে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় সোপর্দ করেছে।

এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) জায়েদ নুর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ১০০৫০ পিচ ইয়াবাসহ শামসুল আলম নামের এক ব্যক্তিকে সিএনজিসহ আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু হয়েছে। বাকী সদস্যরা যদি জড়িত থাকে তাহা তদন্তে বেরিয়ে আসবে।

বিজিবি’র জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াবাসহ আটক শামসুল আলম জানান, বহন করে আনা ইয়াবার চালান তুমব্রু মৃত আবু তাহের কাজলের স্ত্রী তাহেরা বেগম এবং মনিয়ার স্ত্রীর সখিলা তাকেই দেয়। উক্ত ইয়াবার চালান ঘুমধুম জলপাইতলীর একজন সিএনজি চালক ইয়াবা গডফাদার, একজন পিকআপ চালক ও তার ভাইয়ের হয়ে পৌছে দিতে কুতুপালং নিয়ে যাচ্ছিল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •