সৌন্দর্যে ভরা সুইজারল্যান্ড

সুউচ্চ এবং দ্রুতগামী

swizerlaland

গরু এবং গরুর ঘণ্টা

‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’ ছবিটির কারণে সুইজারল্যান্ডের এই গরুর ঘণ্টা ভারতীয় উপমহাদেশে এখন সুপরিচিত। এই দেশে সুন্দর গরুর প্রতিযোগিতা, গরুর দৌঁড় প্রতিযোগিতাসহ গরুকে ঘিরে নানা আয়োজন হয়ে থাকে এবং গরুকে কোনো রকম আঘাত করা যাবে না।

পনীরের দেশ

সুইজারল্যান্ডকে পনীরের দেশ বলা হয়ে থাকে। বছরে সেখানকার মানুষ ২০ হাজার টন চিজ বা পনীর খায়।

swizerlaland

আলপাইন সাউন্ডস

আল্পহর্ন এখন সুইজারল্যান্ডের জাতীয় প্রতীক হিসেবে বিবেচিত। কাঠের তৈরি এই বাঁশি থেকে যে শব্দ বের হয় তা ১০ কিলোমিটার দূর থেকে শোনা যায়। বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা আল্পহর্ন এর দৈর্ঘ্য ৪৭ মিটার।

বন্ধুত্বপূর্ণ এবং ভালো প্রকৃতির কুকুর

আল্পসের সবচেয়ে সুপরিচচিত কুকুর হলো সেন্ট বার্নার্ডস। এদের মধ্যে ব্যারি নামের একটু কুকুর তারকা খ্যাতি পেয়েছে। ১৮১৪ সালে মৃত্যুর আগে কুকুরটি অন্তত ৩০ জনের জীবন বাঁচিয়েছে। বার্নের ন্যাচরাল হিস্ট্রি জাদুঘরে গেলে ব্যারিকে দেখতে পারবেন।

swizerlaland

হাইডির বিশ্ব

সুইজারল্যান্ডের এই মেয়েটির গল্প পুরো বিশ্বের কাছে পরিচিত। মাইয়েনফেল্ড গ্রামের মেয়ে হাইডিকে নিয়ে উপন্যাসটি লিখেছিলেন ইয়োহানা স্পিরি, যা এখন পর্যন্ত ৫ কোটি কপি বিক্রি হয়েছে।

চকলেট

সুইজারল্যান্ডের চকলেট পৃথিবী বিখ্যাত এর মিষ্টতা এবং মসৃণভাবের জন্য।

সুইস আর্মি নাইফ

১৮৯৭ সালে প্রথম তৈরি হয় সুইস ছুরি। তখন এটি ছিল ‘অফিসার্স পকেট নাইফ’। আর এখন সুইজারল্যান্ডের সর্বত্র পাওয়া যায় এই চাকু। এমনকি গোলাপি রঙের এবং ইউএসবি স্টিকযুক্ত।

সুইস আর্মি নাইফ

১৮৯৭ সালে প্রথম তৈরি হয় সুইস ছুরি। তখন এটি ছিল ‘অফিসার্স পকেট নাইফ’। আর এখন সুইজারল্যান্ডের সর্বত্র পাওয়া যায় এই চাকু। এমনকি গোলাপি রঙের এবং ইউএসবি স্টিকযুক্ত।

swizerlaland

টানেলের দেশ

সুইজারল্যান্ডে ১৩শ’রও বেশি টানেল রয়েছে। যেগুলো দিয়ে ডেনমার্ক থেকে সিসিলি অব্দি যাতায়াত করা যায়। গটহার্ড বেস টানেল ৫৭ কিলোমিটার লম্বা এবং বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ রেলওয়ে টানেল।

সুইজারল্যান্ড আছে অন্যখানেও

ঊনবিংশ শতাব্দীতে এসে সুইজারল্যান্ডের মত দৃশ্য আছে এমন জায়গাগুলোর নাম রাখা হয় দেশটির নামে। বর্তমানে বিশ্বের ২০০টিরও বেশি এলাকা আছে সুইজারল্যান্ডের নামে।

সর্বশেষ সংবাদ

মানহানির এক মামলায় হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার জামিন

তারা ভালো কেউ খারাপ বলবেন না!

কাঁদছে গণমাধ্যম, কাঁদছেন সাংবাদিকরা

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৩০

ঈদের পর বিএনপির ‘বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’

পানেরছড়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত, ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার

গোলাম সারোয়ারের ইন্তেকালে বনপা ও জাতীয় অনলাইন প্রেস ক্লাবের শোক

ঈদগাঁও বাজারে ব্যবসা বানিজ্যে ভয়াবহ ধস!

সাংবাদিক ফজলুল কাদের চৌধুরীর সফল অস্ত্রোপচার

অসুস্থ নওশাবা ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি

রামুতে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের প্রতিনিধি সভা

নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আয়োজন করতে হবে : বার্নিকাট

পেকুয়ায় পৃথক পৃথক হামলায় স্কুল ছাত্রসহ আহত ৩

১ সেপ্টেম্বর থেকে মেডিকেল ভর্তি কোচিং সেন্টার বন্ধের নির্দেশ

সাংবাদিক গোলাম সারওয়ার আর নেই

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানের ১১জন আসামী গ্রেপ্তার

একে আযাদ উচ্চবিদ্যালয় রামুর অবহেলিত এলাকায় একটি আলোর মশাল

রোহিঙ্গাদের দ্রুত মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন করার দাবিতে সমাবেশ 

পেকুয়ায় মাদকসেবীকে অর্থদণ্ড

টেকনাফে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২