সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও:

চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের পূর্বপাড়া, জয়নগর পাড়া ও ফরেস্ট অফিস পাড়াসহ বিস্তীর্ণ এলাকার চলাচল সড়ক, জমি, বসতবাড়ি ও সৃজিত বাগানসহ ব্যাপক ভূমি ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে। খুটাখালী ছড়া খালের ভাঙ্গনেই বিলীন হচ্ছে সব। এতে করে বিপাকে পড়েছে ইউনিয়নের পূর্বপাড়া, জয়নগর পাড়া ও ফরেস্ট অফিস এলাকার কয়েক হাজার মানুষ। সর্বাধিক ঝুকিপূর্ণ ও ধ্বসে যাওয়া অফিস পাড়া সড়কটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, ইউনিয়নের খুটাখালী ছড়া খাল কয়েকটি গ্রামের হাজার হাজার মানুষের সুখ দুঃখের সাথি। সম্প্রতি ব্যাপকহারে বালু উত্তোলন করায় ছড়া খালের দু পাশে ভাঙ্গন বৃদ্ধি পাওয়ায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মনে বৃদ্ধি পেয়েছে আতংক। বিশেষ করে অফিস পাড়া,পূর্বপাড়া ও জয়নগর গ্রামের সড়ক, বসতঘর, কৃষি জমি পতিত হতে দেখা গেছে। আবার অনেকের সৃজন করা বনায়ন ও খালের গর্ভে পতিত হচ্ছে। পাহাড়ী ঢলে খুটাখালী ছড়া খালের পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়ায় ফরেস্ট অফিস পাড়ার একমাত্র সড়কটির প্রায় অর্ধশত ফুট ভেঙ্গে গেছে। যৎসামান্য ব্রীক সলিং ও মাটির সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ায় ওই গ্রামের লোকজন ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে।

স্থানীয়রা জানায়, অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, অতিবষর্ণ ও পাহাড়ী ঢলে সড়কটি ভেঙ্গে গেছে। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে সড়কটি সংস্কার করা না হলে অচিরেই পুরোপুরি ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে।

স্থানীয় জয়নগর পাড়ার বাসিন্দা জসিম উদ্দীন জানান, প্রতি বছর অতি বষর্ণে পাহাড়ী ঢলে খুটাখালী ছড়া খালের পানি বেড়ে যায়। এতে করে খালের পার্শ্ববর্তী বসতবাড়ি, জমি ও সড়ক ভেঙ্গে যায়। এবছর ছড়া খালের পানিতে জয়নগর পাড়া চলাচল সড়ক, ফরেস্ট অফিস সড়কটি ভেঙ্গে গেছে। যার কারনে এলাকার লোকজন ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছে। সড়ক দুটি দ্রুত সংস্কার করা না হলে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে বিপাকে পড়বে এলাকাবাসী।

খুটাখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো: আনোয়ার হোসেন জানান, জয়নগর পাড়া সড়ক ও ফরেস্ট অফিস সড়কটি ছড়া খালের ভাঙ্গনে পড়েছে। খালের পানিতে সড়ক দুটির প্রায় ১শ ফুট ভেঙ্গে গেছে। ফলে ঝুঁকি নিয়ে যাতায়ত করছে এলাকার মানুষ।

খুটাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুর রহমান জানান, ফরেস্ট অফিস পাড়া সড়কটির কিছু অংশ ব্রিক সলিং করা হয়েছে। তৎমধ্যে ছড়া খালের পানিতে ভেঙ্গে যাওয়ার বিষয়টি উপজেলা প্রকৌশলিকে জানানোর পর তারা সরেজমিনে পরিদর্শন করে দ্রুত সময়ের মধ্যে সংস্কার কাজ শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন।

এই বিষয়ে চকরিয়া উপজেলা প্রকৌশলি জানান, ইতিমধ্যে তিনি সড়কটি পরিদর্শনের জন্য প্রতিনিধি পাঠিয়েছেন। প্রতিনিধিরা সড়কটি পরিদর্শন করে রিপোর্ট তৈরি করবেন। রিপোর্টটি অনুমোদন পেলে কাজ শুরু করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •