বিশেষ প্রতিবেদক :

কক্সবাজারের সদর উপজেলার লম্বারঘোনা ও মহুরী পাড়া এলাকায় অবৈধভাবে পাহাড় কাটার দায়ে দুই মহিলাসহ তিনজনকে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় পাহাড় কাটার সরঞ্জামও জব্দ করা হয়। শনিবার দুপুর ১২ টার ২ টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এরপর কারাদন্ড দেন সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ও নিবার্হি ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুল হাসান।

কারাদন্ড প্রাপ্তরা হলেন- মো. রফিকের স্ত্রী খতিজা বেগম (৩২), মৃত নুরুল ইসলামের স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম (৬০) ও মৃত বসুর ছেলে মো. রফিক।

নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুল হাসান জানিয়েছে- তারা দীর্ঘদিন ধরে সরকারি খাস জমির পাহাড় কাটায় জড়িত। বর্তমানেও পাহাড় কেটে স্থাপনা করে যাচ্ছে। পরিবেশগত ছাড়পত্র ব্যতিরেকে অবৈধভাবে সরকারি খাস খতিয়ানের পাহাড় কাটায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০) এর ৬(খ), ১৫(১)৫ ধারা অনুযায়ী খতিজা বেগম ও নুরুন্নাহার বেগমকে দুই মাস ও মো. রফিককে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। এসময় পাহাড় কাটার কাজে ব্যবহৃত একটি সাবাল, একটি কোদাল ও সাথে থাকা একটি মোবাইল সেট জব্দ করা হয়। জব্দকৃত মালামাল পরিবেশ অধিদপ্তর কক্সবাজারের হেফাজতে রয়েছে। এসময় সদর থানার এএসআই জনাব শরীফ ও তার সঙ্গীয় ফোর্স উপস্থিত ছিলেন। উক্ত মোবাইল অভিযানে প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন পরিবেশ অধিদপ্তর কক্সবাজার কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক সাইফুল আশ্রাব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •