প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

জোর জবরদস্তি করে চেয়ার দখল করা যায় কিন্ত জণগনের সম্মান আদায় করা যায়না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন,  গত ২৫ জুলাই কক্সবাজার পৌরসভায় যে নির্বাচন হয়েছে তা কক্সবাজারের রাজনৈতিক সম্প্রীতিকে কলংকিত করেছে। সরকারী দলের প্রার্থী নিজের ভরাডুবি আঁচ করতে পেরে বিএনপি নেতাকর্মীদের কেন্দ্রছাড়া করতে ভয়ভীতি ও মিথ্যা কাল্পনিক মামলায় গ্রেফতার করে নগ্নভাবে ভোট ডাকাতি করেছে। সেদিন সরকারী দল ও প্রশাসন মিলে জনগণের ভোটাধিকার হরণ না করলে ধানের শীষ বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হত।

বিএনপির মনোনিত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলামের উদ্যোগে শুক্রবার (৩ আগষ্ট) বিকেল ৪ টায় জেলা বিএনপি কার্যালয়ে আয়োজিত সদ্য কারামুক্ত নেতাদের সংবর্ধনা সভায় তারা একথা বলেন। তিনি কারামুক্ত নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান এবং ধৈর্য্যধারণ করে মাঠে থাকার আহবান জানিয়ে মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন, যারা বিএনপি নেতা কর্মীদের গ্রেপ্তার ও হয়রানী করে ধানের শীষের বিজয় ছিনতাই করেছে। একদিন তাদেরকে এই অপকর্মের খেসারত দিতে হবে।

তিনি বলেন, ভোট বিহীন এই এই সরকার  সারা দেশে  বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর যে ভাবে নির্যাতনের স্টীম রোলার চালাচ্ছে  জনগনের যৌক্তিক আন্দোলনে  সরকার পতনের মধ্যদিয়ে একদিন এর পরিসমাপ্তি ঘটবে।

জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি ও বিএনপির মনোনিত মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি সরওয়ার রোমনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন,  জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাধারণ সম্পাদক এডঃ মোহাম্মদ ইউনুচ, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আমির আলী, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাসেদুল হক রাসেল, সাধারণ সম্পাদক এডঃ মনির উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা আবছার কামাল, শ্রমিকদল নেতা এস্তাক আহমদ।

শহর ছাত্রদল নেতা মোহাম্মদ মোকাররমের কোরান তেলাোয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় কারা নির্যাতিত নেতা জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি সাইফুর রহমান নয়ন, শহর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মিনারুল কবির আল আমিন, জেলা যুবদলের অর্থ সম্পাদক নাইমুল ইসলাম টিটু, সহ-প্রচার সম্পাদক ইসমাইল সোহাগ, শহর ছাত্রদল নেতা হামিদুর রহমান সোহাগ, মোহাম্মদ ফারুখ ও জাহেদ হোসাইন বাবুকে ফুলের মালা দিয়ে সংবর্ধিত করেন।

এসময় উপস্হিত ছিলেন, জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জাহেদুল ইসলাম রিটন, শাহাদত হোসেন রিপন, ফারুখ আজম, ফাহিমুর রহমান, ওমর ফারুখ দিনার, শ্রমিকদল নেতা মোহাম্মদ ইকবাল, জেলা কৃষকদলে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তারেকুল ইসলাম, শ্রমিকদল নেতা খাইরুল আমিন হিরু, মোহাম্মদ আলী প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •