হজে ইহরাম অবস্থায় নিষিদ্ধ কাজ করলে করণীয়

ধর্ম ডেস্ক:

হজ পালনকালে অনিচ্ছাবশত ত্রুটি-বিচ্যুতি বা নিয়মের ব্যতিক্রম ঘটে যায়। এগুলোকে হজের পরিভাষায় জিনায়াত বলা হয়। এ সব ত্রুটি বিচ্যুতির মধ্যে কিছু বিষয় আছে অনেক বড় আবার কিছু বিষয় আছে ছোট। আবার কিছু বিষয় আছে যা একেবারে সাধারণ পর্যায়ের; যার কোনো কাজা বা কাফফারা নেই।

তবে হজের সময় অনিচ্ছায় ঘটে যাওয়া ত্রুটি বা বিষয়গুলোর গুরুত্ব ও লঘুত্ব বিবেচনায় কয়েকটি বিধান রয়েছে। আর তাহলো- দম, বুদনা ও সাদকা।

দম
একটি ছাগল, ভেড়া বা দুম্বা জবেহ করা। গরু, মহিষ বা উট হলে তার ৭ ভাগের এক ভাগ দেয়া।

– যদি কেউ হজ বা ওমরার ওয়াজিব আদায়ে ভুল করে ফেলে অথবা ইহরামের নিষিদ্ধ কোনো কাজ করে ফেলে তবে তাকে দম দিতে হবে।
– আবার অনেক সময় একাধিক দমও দিতে হয়। কারণ ইহরাম অবস্থায় কিরান হজ পালনকারী হাজি তার ত্রুটির জন্য হজ ও ওমরা উভয়টির নিয়তের কারণে ওমরার আগেই ২টি দুম দিতে হয়। কেননা কিরান হজ পালনকারী ব্যক্তি এক ইহরামেই হজ ও ওমরা পালন করবে।

বুদনা
একটি পূর্ণ গরু বা উট কুরবানি দেয়া। এটা দুটি কাজের সংঘটিত হলে দিতে হয়-
– জানাবাত তথা গোসল ফরজ অবস্থায় অথবা হায়েজ (ঋতুস্রাব) ও নিফাস (সন্তান জন্মদানের পর রক্ত নির্গত হওয়া) অবস্থায় কাবা শরিফ তাওয়াফ করলে এবং
– ওকুফে আরাফা বা আরাফাতের ময়দানে অবস্থানের পর মাথা মুণ্ডনের আগে স্ত্রীর সঙ্গে সহবাস করলে পূর্ণ গরু বা উট কুরবানি দিতে হয়।

সাদকা
ফিতরা অথবা ১ কেজি ৭৫০ গ্রাম গম বা তার মূল্য দান করাকে বোঝায়।
– সাধারণত ইহরাম অবস্থায় নিষিদ্খ কাজগুলো কোনোটি করলে অথবা হরম এলাকায় নিষিদ্ধ কোনো কাজ করলে প্রতিবিধান স্বরূপ ‘দম’ দেয়ার পাশাপাশি ক্ষেত্র বিশেষ সাদকাও দিতে হয়।
– এ সব সাদকা আদায়ে কেউ এক বা দু মুষ্টি গম দ্বারা আদায় করতে পারে।
– আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে পৌনে ২ সের (১ কেজি ৭৫০ গ্রাম্র) গম বা আটা দ্বারা আদায় করতে পারে।
– আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে সাড়ে ৩ সের (৩ কেজি ৫০০ গ্রাম) গম বা আটা সাদকা হিসেবে দিতে হয়।

মনে রাখতে হবে
হজের যে ৩টি কাজ ফরজ এর কাজা আদায় করতে হবে। এ কাজে ভুল হলে তার কোনো কাজা নেই। পরের বছর পুনরায় এ কাজগুলো আদায় করার মাধ্যমে কাফফারা আদায় করতে হবে।

সুতরাং হজ ও ওমরা আদায়ে অবশ্যই নিষিদ্ধ কাজগুলোর ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। যাতে এমন কোনো নিষিদ্ধ কাজ না হয়; যার কারণে দম, বুদনা বা সাদকা দিতে হয়।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে হজ ও ওমরার কাজগুলো ধীরস্থিরভাবে পালন করার তাওফিক দান করুন। দম, বুদনা ও সাদকা দেয়ার মতো কাজ থেকে হেফাজত করুন। আমিন।

সর্বশেষ সংবাদ

সমাজসেবায় মাদার তেরেসা স্বর্ণ পদক পেলেন কামরুল হাসান

পরিচালকের যৌনতার অভিযোগে প্রিন্সিপ্যালের পদত্যাগ

ফেঁসে গেলো খরুলিয়ার ভূমিদস্যু শফিক, ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বসতভিটা রক্ষার চেষ্টাই কাল হলো তাদের

বর্তমান শাসনামলে খেলাপি ঋণ সবচেয়ে বেশি বেড়েছে: মেনন

সকল মানুষের কাছে চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন কবি আল মাহমুদ

নুসরাত হত্যাকারিদের দ্রুত শাস্তি দাবী পূজা উদযাপন পরিষদের

খরুলিয়ার জমি সংক্রান্ত বিরোধের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এমপি কমল

চকরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় এনজিও কর্মী নিহত

পেকুয়ায় কাছারীমোড়া সাহিত্যকেন্দ্রের উদ্বোধন

বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

শৃংখলা মেনে চললে যানজটের ও দুর্ঘটনাও কমে আসবে – ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার

শ্রীলঙ্কা হামলায় আইএসের বুনো উল্লাস

শ্রীলঙ্কায় হামলার পেছনে ‘ন্যাশনাল তৌহিদ জামাত’

চট্টগ্রামে আসামি ধরতে গিয়ে গোলাগুলিতে আহত ৬ পুলিশ

মক্কা থেকে হারিয়ে গেল কক্সবাজারের সাদ

আল্লাহর কসম খেয়ে বলছি মাদকের সাথে আমি জড়িত নই- দিদার বলী

জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার

নুসরাত হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত রুহুল আমিনের উত্থানের নেপথ্যে

বেনাপোল বন্দরের নির্মান কাজের চুরি যাওয়া রড উদ্ধার