নিজস্ব প্রতিবেদক:
সব বিজয় গৌরবের নয়, আবার অনেক পরাজয় গ্লানির নয় বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী বিষয়ক সম্পাদক ও কক্সবাজার সদর আসনের সাবেক এমপি লুৎফুর রহমান কাজল।
তিনি বলেন, ২৫ জুলাই কক্সবাজার পৌরসভায় যে নির্বাচন হয়েছে তা ইতিহাসে নতুন কলঙ্কজনক অধ্যায় হয়ে থাকবে। সরকারী দলের প্রার্থী মুজিবুর রহমান নিজেই নগ্নভাবে ভোট ডাকাতি করেছে। ভোট কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে ব্যালট ছিনিয়ে নিয়েছে। নিজের হাতে নৌকায় সীল মেরে বক্সভর্তি করে দিয়েছে। ভোটেরর দিন সকালের দিকে কিছুটা ভোট দিতে পেরেছে জনগণ। এতে ১০ হাজার ভোট পেয়েছে বিএনপি। হিসেব করতে তা কিন্তু কম নয়।
শুক্রবার (২৭ জুলাই) বিকালে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে আয়োজিত নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে লুৎফুর রহমান কাজল এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, আমাদের হিসেব মতে কাস্টিং ভোটের প্রায় ২৫ শতাংশ সঠিক। বাকি সব জাল ভোট। সরকারী দল ও প্রশাসন মিলে জনগণের ভোটাধিকার হরণ না করলে বিএনপির প্রার্থী রফিকুল ইসলাম বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হতেন। পরিস্থিতি আচ করতে পেরে নৌকার প্রার্থী ও তার লোকজন কেন্দ্র দখল করে জনরায় ছিনিয়ে নিয়েছে। কক্সবাজার পৌরবাসী নতুন এক ‘ফিল্মি নির্বাচন’ প্রত্যক্ষ করেছে। এরকম বিজয় গৌরবের হতে পারেনা, এটি লজ্জাজনক বিজয়। সভায় লুৎফুর রহমান কাজল নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান এবং ধৈর্য্যধারণ করে মাঠে থাকার অনুরোধ করেছেন। বিএনপির মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকে মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম সবার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম আরা স্বপ্না, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রাশেদ মোহাম্মদ আলী, বিএনপি নেতা এডভোকেট আবু ছিদ্দিক ওসমানী, যুবদলের কেন্দ্রীয় সদস্য এম মোকতার আহমদ, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জিসান উদ্দিন জিসান, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাশেদুল হক রাসেল প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •