ফারুক আহমদ, উখিয়া তারিখ: 

উখিয়ার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের দূর্গম পাহাড়ী এলাকা উত্তর বড়বিল গ্রামের মঙ্গলবার গভীর রাতে ৮টি বাড়ীতে র্দুধর্ষ গণ ডাকাতি সংঘঠিত হয়েছে। সষস্ত্র ডাকাত দল বাড়ীতে ডুকে মারধর ও অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা ও মূল্যবান মালামাল সহ প্রায় ৪ লক্ষাধিক টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় ডাকাতের প্রহারে নারী-পুরুষ সহ ৫জন আহত হয়েছে। গণ ডাকাতির ঘটনায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি চরম অবনতি দেখা দিয়েছে।

শিক্ষানুরাগী আজিজুল হক চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, গত কয়েকদিন প্রবল বর্ষণ ও মৌসুমী বায়ুর সুযোগে একদল অস্ত্রধারী ডাকাত দূর্গম এলাকা উত্তর বড়বিল গ্রামে ভয়াবহ ডাকাতি সংঘটিত করে। উক্ত ডাকাত বাহিনী একের পর এক ৮টি বাড়ীতে সিরিজ ডাকাতি করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ ধরনের সিরিজ ডাকাতির ঘটনায় এলাকাবাসীর মাঝে চরম উৎকন্ঠা ও আতংক বিরাজ করছে।

স্থানীয় বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ১৫/২০ জনের ডাকাত দল মালেশিয়া প্রবাসী মুফিজুর রহমান, দুদু মিয়া, মো: জাহাঙ্গীর, ছৈয়দ আলম, মোক্তার মিয়া, আবু তাহের ও বাবুল মিয়ার বাড়ির দরজা ভেঙে ঘরে ডুকে হাত-পা বেধেঁ তান্ডবলীলা চালায়। গণ ডাকাতি কালে অস্ত্রের মুখে জিম্মি ও মারধর করে মালামাল লুটপাট চালায়। এ সময় বাঁধা দিতে গিয়ে ডাকাতের প্রহারে ৫ জন আহত হয়। তৎমধ্যে দুদুমিয়ার ছেলে রিদুয়ানকে (২২) মারধর করে হাত-পা বেধেঁ অপহরণ করে নিয়ে যায়। বুধবার সকালে তাকে পাহাড়ী এলাকা থেকে মুমুর্ষ অবস্থায় এলাকাবাসী উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় মেম্বার মোক্তার আহমদ গণ-ডাকাতির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়েরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •