রোহিঙ্গাদের ফেরাতে মিয়ানমারকে জাতিসংঘের তাগাদা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে তাগিদ দিয়েছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে রোহিঙ্গাদের নিরাপদে এবং স্বেচ্ছায় দেশে ফেরাতে মিয়ানমারকে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানানো হয়।

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্য রাষ্ট্রের উপস্থিতিতে একটি রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন সহায়তা এবং রোহিঙ্গাদের দেশে ফেরানো ও রাখাইনের অভ্যন্তরে যারা গৃহহারা হয়ে পড়েছে তাদের নিজ আবাসস্থলে ফেরাতে সহযোগিতা করার আহ্বান জানানো হয়।

এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য রাষ্ট্ররা স্বাধীনতার প্রতিশ্রুতি ও মানবাধিকারের লঙ্ঘনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্বচ্ছ অনুসন্ধানের ওপর সব সময়ই জোরালোভাবে চাপ সৃষ্টি করে আসছে।

মিয়ানমারে জাতিসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন স্ক্রানার বার্গেনার বলেন, রাখাইন থেকে পালিয়ে আসা হাজার হাজার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করেছে মিয়ানমার সরকার।

বার্গেনার আরও বলেন মিয়ানমারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ, বলছে তারা সত্যিই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে চায়। তিনি এটাও উল্লেখ করেছেন যে, রাখাইনে সংখ্যালঘু মুসলিম এবং বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠদের ব্যাপারে চিন্তিত তারা।

বার্গেনার বলেন, সরকার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে চায় কিন্তু তাদেরকে স্বেচ্ছায়, নিরাপদে, সম্মানের সাথে এবং স্থায়ীভাবে থাকার মানসিকতা নিয়ে ফিরতে হবে।

মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির সঙ্গে কথা বলে এই বিশেষ দূত জানান তিনি এ ব্যাপারে বেশ গঠনমূলক, খোলাখুলি এবং বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনা করেছেন। বার্গেনার বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে সমালোচিত অং সান সুচি রোহিঙ্গাদের ফেরানোর জটিলতা এবং ঝুঁকি সম্পর্কেও বেশ সচেতন।

দু’মাস আগে যোগদানের পর এ পর্যন্ত দু’বার মিয়ানমারে সফর করেছেন এই বিশেষ দূত। আগামী সেপ্টেম্বরে তিনি আবারও রাখাইন রাজ্যসহ দেশটির বাকি রাজ্যগুলো পরিদর্শন করবেন।

গত বছরের আগস্টের শেষের দিকে রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে অস্ত্র হাতে তুলে নেয় বিদ্রোহীরা।

মিয়ানমারের সীমান্তে বেশ কিছু নিরাপত্তা চেকপোস্টে বিদ্রোহীদের হামলার কারণে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন চালায় সেনাবাহিনী। রাখাইনে অভিযানের নামে সেনাবাহিনীর নির্যাতনে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে যায়।

সর্বশেষ সংবাদ

হোপ ফাউন্ডেশনে ‘জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ ২০১৯’ উৎযাপন

খরুলিয়ার সেই মা-মেয়েকে মামলা দিয়ে কারাগের প্রেরণ

এড. কবির ছিলেন একজন সফল মানুষ : জেলা জজ হাসান মোঃ ফিরোজ

কক্সবাজার সরকারি কলেজে ইতিহাস বিভাগের ৪র্থ বর্ষে পদার্পণ উৎসব

চতূর্থবারের মতো চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ টেকনাফের ওসি প্রদীপ

চকরিয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতে মাদকসেবীকে ৩ মাসের সাজা

বদরমোকাম সমাজের পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠিত

সাংবাদিক হানিফসহ তিনজনকে শ্রেষ্ঠ সন্তান ও ছয় জনকে শ্রেষ্ঠ প্রবীণ সম্মাননা

নবম শ্রেণির প্রশ্নে সানি লিওন-মিয়া খলিফা!

আবুধাবি দূতাবাসে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ উদযাপন

এক পা দিয়ে লাফিয়ে লাফিয়ে টিউশনি করে পড়াশোনা ও সংসারের ঘানি টানছেন যিনি

হোপ ট্রেনিং সেন্টারের নতুন ফ্লোর উদ্বোধন

লামায় সতেরটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে চলছে পাঠদান

চকরিয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতে মাদকসেবীকে ৩ মাসের সাজা

জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল সৌদি আরব প্রবাসী কক্সবাজার জেলা কমিটি অনুমোদন

শুক্রবার মরিচ্যা উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী

কক্সবাজারে ১৫ আনসার ব্যাটালিয়নের বার্ষিক ফায়ারিং অনুষ্ঠান সম্পন্ন

জামিন পেলেন হিরো আলম

হাসপাতালের সুপার প্রটোকলে ব্যস্ত : দুদকের শুনানীতে আইসিইউ ইনচার্জ

উপকূলে প্যারাবন রক্ষা ও টেকসই বেড়িবাঁধ নিশ্চিত করতে হবে