পরাজয়ের ভয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে আ. লীগ প্রার্থী- সরওয়ার কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজার পৌর নির্বাচনের নাগরিক কমিটি মনোনিত মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র (বরখাস্ত) সওয়ার কামাল অভিযোগ করেছেন, জনগণের প্রতি আস্থা না থাকায় পরাজয়ের ভয়ে দিশেহারা হয়ে গেছে আওয়ামী লীগের প্রার্থী। তাই নীলনকশার মাধ্যমে ভোট ডাকাতি করার জন্য আমাদের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করে তাদেরকে গ্রেফতার ও এলাকাছাড়া করেছে।

নেতাকর্মীদের ধরপাকড় প্রতিবাদে ও নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা উপলক্ষ্যে  সোমবার (২২ জুলাই) বিকালে নিজের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন। এসময় তাঁর প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক গোলাম কিবরিয়াসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

সরওয়ার কামাল বলেন, ‘আওয়ামী লীগের প্রার্থী মুজিবুর রহমান পরাজয়ের আশঙ্কায় ভোট ডাকাতি করার জন্য নীলনকশার পরিকল্পনা করেছে। তারই অংশ হিসেবে আমাদের নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা করেছে। আমাদের নির্বাচনী প্রচারণা বাধা ও সমর্থকদের হয়রানি করছে। পুলিশ ও ডিবি দিয়ে নির্বিচারে ধরপাকড় চালাচ্ছে। আমাদের এজেন্টদের বাড়িতে বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে। শুধু তাই নয়; নীলনকশার বাস্তবায়নের জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের এনেছে। তারা ভোট ডাকাতি করে কক্সবাজারের শান্ত পরিবেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।’

তিনি বলেন, ‘ভোট ডাকাতি হলে কক্সবাজারের মানুষ তা কোনোভাবেই মেনে নেবে না। তা করা হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। কক্সবাজারে লাগাতার হরতাল দেয়া হবে। রাজপথে নেমে আসবে কক্সবাজারের আপামর জনসাধরণ। এতে এক ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। এই পরিস্থিতির দায়-দায়িত্ব তাদেরকে নিতে হবে।’

মেয়র সরওয়ার কামাল বলেন, ‘আমরা চাই না কক্সবাজারের শান্ত পরিস্থিতি নষ্ট হোক। এতে রোহিঙ্গা ইস্যুতে কক্সবাজারে অবস্থান তিনহাজার বিদেশী ও বহির্বিশ্বে কক্সবাজারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সরকারী দলের লোকজন আমাদের উপর অত্যাচার চালালেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেবে না। কারণ পুলিশ সরকারের পেটুয়া বাহিনী। তাই সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ভোট সম্পন্নের জন্য আমরা সেনা মোতায়েন চাই। দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীর প্রতি সকল জনগণের প্রগাঢ় আস্থা রয়েছে। তাই নির্বাচনে সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখার জন্য আমি সেনাবাহিনী মোতায়েন করার জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি দাবি জানাচ্ছি।’ তারপরও পুলিশকে নিরপেক্ষতা বজায় রেখে পরিবেশ শান্ত রাখার আহ্বান জানান।’

সরওয়ার কামাল অভিযোগ করেছেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী মুজিবুর রহমান বিভিন্ন উপজেলা থেকে চিহ্নিত সন্ত্রাসী এনে কক্সবাজারে জড়ো করছে। এসব সন্ত্রাসীরা এখন ১নং ও ২নং ওয়ার্ড ও পেশকার পাড়ায় অবস্থা করছে। তাদের করা হচ্ছে আগ্নেয়াস্ত্রসহ বিভিন্ন অবৈধ অস্ত্র। অবস্থান এসব বহিরাগত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করার জন্য পুলিশের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে আবারো আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে সরওয়ার কামাল বলেন, ‘ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে চরমভাবে আচরণবিধি লঙ্ঘন করছেন। তিনি একশটির বেশি নির্বাচনী অফিস স্থাপন করেছেন। জীবন্ত নৌকা পথে এনেছেন।’

পরে তিনি কক্সবাজার পৌরসভার উন্নয়নে তার অবদান ও আগামীতে সুন্দর পৌরসভা গড়ায় ১০ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেন।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

জুমার দিনের দোয়া: নাজিমরা ফিরে আসুক কল্যাণের পথে

রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা-নজরদারিতে এবার আর্মড পুলিশের নতুন ব্যাটালিয়ন

তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের দ্বন্দ্ব, হচ্ছেনা বিশ্ব ইজতেমা

ঈদগাঁওতে পিএসপি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা

দেশপ্রেমিক আদর্শ জনগোষ্ঠী তৈরী করছে কওমি মাদ্রাসা -আহমদ শফী

১৯৯০ ব্যাচের ছাত্র নুর রহিমের মায়ের মৃত্যু, ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের শোক

ভোট আর পেছাচ্ছে না

নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ঈদগাঁওতে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল

চকরিয়া পৌর যুবলীগ নেতা ফরহাদ আর নেই, জানাজা সম্পন্ন

বেবী নাজনীন ছাড়া পেয়েছেন, নিপুনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে

চকরিয়ায় উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধে কর্মশালা সম্পন্ন

চকরিয়ার সাংবাদিক বশির আল মামুনের মাতার ইন্তেকাল

শহীদ জিয়া স্মৃতি মেধা বৃত্তি পরীক্ষার চকরিয়া কেন্দ্রের স্থান পরিবর্তন

নয়াপল্টনে ‘ট্রাফিকের’ দায়িত্বে বিএনপি কর্মীরা

নবনির্বাচিত কক্সবাজার প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দকে টুয়াকের শুভেচ্ছা

বিএনপি নেত্রী নিপুন রায় ও বেবী নাজনীন আটক

চবিতে প্রক্সি দিয়ে ভর্তির চেষ্টা, মহেশখালীর শিক্ষার্থী আটক

শেরপুরে সম্মাননা পেলো কক্সবাজার ব্লাড ডোনারস সোসাইটি

পরীক্ষা শেষ, রেজাল্ট দেখে যেতে পারেনি মিশুক

কক্সবাজার সৈকতের বালিয়াড়িতে দিবারাত্রির বীচ-কাবাডি শুরু