চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে যন্ত্রপাতির সংকট : চিকিৎসা সেবা ব্যাহত

জে.জাহেদ,চট্টগ্রাম :

প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির অভাবে কাংখিত চিকিৎসা সেবা দিতে পারছে না চট্টগ্রামের জেনারেল হাসপাতাল।

তিনটি অপারেশন থিয়েটারের মধ্যে দু’টির টেবিল এবং সিলিং লাইট নষ্ট। সে সাথে সংকট রয়েছে ডায়াথারমি, ল্যাপ্রোস্কোপি এবং প্যাথেলজি এনালাইজারের।

তিন বছর পর এক্সরে মেশিন চালু হলেও নেই পর্যাপ্ত টেকনেশিয়ান। নানা জটিলতার কারণে যন্ত্রপাতিও সংগ্রহ করতে পারছে না হাসপাতালটি।

বর্তমানে নানা সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালটি । বিশেষ করে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির সংকট মারাত্মক।

হাসপাতালের ৩টি অপারেশন থিয়েটারের মধ্যে পুরোদমে চালু রয়েছে মাত্র একটি অপারেশন থিয়েটার।

বাকি দু’টি চালাতে হচ্ছে অনেকটা জোড়াতালি দিয়ে। অপারেশন টেবিলগুলো যেমন ত্রুটিপূর্ণ, তেমনি নষ্ট হয়েছে অপারেশন থিয়েটারের সিলিং লাইটও।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সার্জন ডা. নুরুল আজিম বলেন, ‘তিনটা ওটিতে আমরা কাজ করছি। তারমধ্যে দুইটা ওটি টেবিল পুরোপুরি নষ্ট। একটামাত্র সিলিং লাইট কার্যকর আছে। আর গুলো আমরা জোড়াতালি দিয়ে কাজ চালিয়ে নিচ্ছি।’

রোগ নিরূপণ বা প্যাথলজি বিভাগেও রয়েছে যন্ত্রপাতির সংকট। টানা তিন বছর বন্ধ থাকার পর সম্প্রতি চালু করা হয়েছে এক্সরে মেশিন।

কিন্তু এক্সরে ফিল্ম সরবরাহ এবং টেকনিশিয়ানের সমস্যার সমাধান হয়নি।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. অসীম কান্তি নাথ বলেন, ‘প্যাথলজিতে আমাদের অ্যানালাইজার মেশিন নেই। আগেও ছিলো না। আমার অবশ্যই একটা অ্যানলাইজার মেশিন দরকার। এখন সেটা না হলে, ওটিতে কোন জিনিস নষ্ট হয়ে গেলে ওটি বন্ধ হয়ে যাবে।’

প্রতিষ্ঠালগ্ম থেকেই রোগীদের বিনামূল্যে ওষুধ সরবরাহের বিধান রয়েছে হাসপাতালটিতে।

কিন্তু বর্তমানে তালিকাভুক্ত ৫৮ ধরণের ওষুধের মধ্যে বর্তমানে দেয়া যাচ্ছে মাত্র ২৩ ধরণের।

১৯০১ সালে তৎকালীন ব্রিটিশ সরকার বৃহত্তর চট্টগ্রামের রোগীদের সুবিধার্থে রংমহল পাহাড়ে হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করে।

২৫০ শয্যার এই হাসপাতালে আউটডোর, ইনডোর এবং জরুরি বিভাগে প্রতিদিন অন্তত ১৫শ রোগী চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে।

এ বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি প্রতাশ্যা করেন সেবাপ্রার্থীদের অনেকে।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

ক্যান্সার চিকিৎসায় কত লাগে?

সরকারের সেবায় সোনালী ব্যাংকের ক্ষতি হাজার কোটি টাকা

যেসব আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

ঈদগাঁওতে মাধ্যমিক শিক্ষকদের এমপি ও কউক চেয়ারম্যানের সহযোগিতার আশ্বাস

কাঁচা মরিচের অনেক ঔষধি গুণ রয়েছে। এবার কাঁচা মরিচের ৫ গুণ জেনে নিন

কোটি কোটি টাকার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এখন ধ্বংসস্তূপ!

মুখ ধোওয়ার সময় যে ভুল করবেন না

তুরস্কে মেঘ আর মসজিদের মিতালি!

মালয়েশিয়ায় ব্যাপক ধর-পাকড়, ৫৫ বাংলাদেশি আটক

কক্সবাজার থেকে ফটোশুট ফেরত মডেলের গাড়িতে পৌনে দুই লাখ ইয়াবা!

ওবায়দুল কাদের আসছেন আজ

ডুলাহাজারার আশরাফ উদ্দিন কাউখালী থানার ওসি

একান্ত সাক্ষাৎকারে অতি. পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন : অপরাধীর সাথে আপোষ নয়

প্রসঙ্গ : প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলতি দায়িত্ব

বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের প্রায় ১শ কি.মি সড়ক চলাচলের অনুপযোগী, সেতুমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ

টেকপাড়ায় মাঠে গড়াল বৃহত্তর গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্টের ৫ম আসর

মাতারবাড়ী কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনে গেলেন বিভাগীয় কমিশনার

নতুন বাহারছড়ার সেলিমের অকাল মৃত্যু: মেয়র মুজিবসহ পৌর পরিষদের শোক

জেলা আ’ লীগের জরুরী সভা

মাদক কারবারীদের বাসাবাড়ীতে সাঁড়াশি অভিযান, ইয়াবাসহ আটক ৩