রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রান্নাঘর পাল্টে দেয়ার চিন্তা

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রান্নায় জ্বালানির অপচয় ঠেকাতে বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। প্রতি পরিবারের জন্য আলাদা রান্নার বদলে সমাজভিত্তিক রান্নাঘর নির্মাণের চিন্তা করেছে সরকার।

পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ রবিবার সচিবালয়ে এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘গাছ কেটে জালানি তৈরি করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তা রান্নার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে করে পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। এটা নিরসনে আমারা রোহিঙ্গাদের জন্য কমিউনিটি রান্নাঘর নির্মাণের চিন্তা করছি।’

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনা অভিযানের মুখে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশের দিকে ছুটে আসা ১১ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গার আশ্রয় হয়েছে কক্সবাজারের ক্যাম্পে।

রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের জন্য টিলা ও গাছ কাটতে হয়েছে বিপুল সংখ্যক। পাশাপাশি উন্নত পয়ঃনিষ্কাষণ ব্যবস্থা না থাকাতেও পরিবেশের দূষণ নিয়ে দুশ্চিন্তা আছে।

আবার বিপুল সংখ্যক পরিবারের খাবার তৈরিও একটি বড় চিন্তা। জ্বালানি হিসেবে সেখানে ব্যবহার হচ্ছে কাঠ। স্বভাবতই আশেপাশের বিভিন্ন বৃক্ষের ওপর পড়েছে খড়্গ।

রোহিঙ্গাদেরকে নিজ দেশে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। কিন্তু মিয়ানমারের টালবাহানায় যে প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার কথা ছিল গত জানুয়ারিতে, সেটি এখনও অনিশ্চিত। ফলে রোহিঙ্গারা আরও বহুদিন এখানে থাকছে এটা অনেকটাই নিশ্চিত। আর তাই বিকল্প চিন্তা করতেই হচ্ছে সরকারকে।

বনমন্ত্রী বলেন, ‘এর আগে আমরা ক্যাম্পগুলোতে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার দেওয়ার কথা ভেবেছিলাম। কিন্তু তা হতো বিপজ্জনক। যেকোন সময় বড় দুর্ঘটনা হতে পারে। তাই আমরা সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছি।’

‘আমি এ বিষয়ে সেখানে একাধিকবার পরিদর্শনে গিয়েছি। আমাদের সচিবও গিয়েছেন। সেখানে যাতে পরিবেশের কোন ক্ষতি না ঘটে সেজন্য আমরা সব ব্যাস্থা নেব।’

মন্ত্রী জানান, গত তিন বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযানে  মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদদের স্মৃতির সম্মানে সারাদেশে ৩০ লাখ গাছের চারা রোপন করা হবে।

এই কর্মসুচিতে সাধারণ মানুষ স্বতস্ফুর্তভাবে অংশ নেবে বলেও আশা করেন মন্ত্রী। বলেন, এতে একসঙ্গে দুটি কাজই হয়ে যাবে। একদিনে রক্ষা পাবে পরিবেশ, অন্যদিকে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিও জাগরুক থাকবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার পরিবেশ সংরক্ষণ ও জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মোকাবেলায় কাজ করছে। একটি উন্নত দেশ গঠনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০ টি বিশেষ উদ্দ্যেগের মধ্যে একটি হচ্ছে পরিবেশ সুরক্ষা। তাই আমাদের মন্ত্রণালয় এ দিকে বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে।’

ঢাকাটাইমস

সর্বশেষ সংবাদ

সেন্টমার্টিন বি এন স্কুলে কলেজ শাখার পাঠদানের অনুমোদন

৩০ এপ্রিলের মধ্যে শপথ না নিলে বিএনপি এমপিদের আসন শূন্য

ঈদগাঁওতে ঘন ঘন দিবারাত্রী লোডশেডিং

রাঙামাটি থেকে গ্রেফতার হলো নুসরাত হত্যা মামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারি রানা

অসহায় প্রতিবন্ধী পরিবারের আর্তনাদে আকাশ বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে

সামিটের এলএনজির জাহাজ এখন মহেশখালীতে

শনিবার রাত থেকে ইন্টারনেটের গতি ধীর হতে পারে

আজ পবিত্র শবে বরাত

ঈদের পর সরকারকে ১০ নম্বর হুঁশিয়ারি!

এবার খুরুশ্কুল আশ্রয়ণ প্রকল্পের সড়কের জমিতে ভবন নির্মাণ

মাতামুহুরী ব্রীজে ফের দেবে গেছে,  দূর্ঘটনার আশঙ্কা

চকরিয়ায় মাংসের মূল্য নির্ধারণ করলেন প্রশাসন

ভালুকিয়া যুব কল্যাণ সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাশেমের অকাল মৃত্যু

সব ধর্মের অনুসারীদের নিজ ধর্ম পালনের সমান সুযোগ নিশ্চিত করেছে সরকার-ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

শহরের বায়তুশ শরফ এলাকা থেকে ৪ দিন ধরে কন্যা শিশু নিখোঁজ

সীতাকুণ্ডে কক্সবাজারের ‘ইয়াবাপ্রেমী’ দুই প্রেমিক যুগল আটক,২০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার

‘ধারালো দা’সহ আটক হামলাকারীর বিরুদ্ধে মামলা নেয়নি পুলিশ’

স্বপ্নজালের জরুরী সভা অনুষ্ঠিত

জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে মানববন্ধন

লামায় প্রান্তিক কৃষকের তামাক লুটের অভিযোগ, মারধরে আহত ৭