আমি স্বপ্ন দেখি, সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে ব্যাকুল হয়ে থাকি

সুষম উন্নয়ন আমার মূল লক্ষ্য : রুহুল আমিন সিকদার

আব্দু শুক্কুর ॥
আম-জনতা আমাকে ভালোবাসে। আমি তাদের সঙ্গে আছি এবং থাকবো। আমার স্বপ্ন মানুষকে নিয়েই, আমি তাদের ভীড়ে মিশে যেতে আনন্দ পাই, কক্সবাজার পৌরসভার সকল এলাকায় সুষম উন্নয়ন আমার মূল লক্ষ্য’।
এমনিভাবেই কক্সবাজার পৌরবাসীকে নিয়ে স্বপ্ন ও নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রসঙ্গে বিভিন্ন পথসভায় নিজের অভিমত ব্যক্ত করে চলছেন জাতীয় পার্টির মনোনিত মেয়র প্রার্থী, বিশিষ্ট সমাজপতি আলহাজ্ব শামসুল হক সিকদারের সুযোগ্য পুত্র, আপোষহীন লেখক ও কলামিস্ট আলহাজ্ব রুহুল আমিন সিকদার। অনেকটা জোরেসোরে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন এ প্রার্থী। আধুনিক পৌরসভা গড়ে তুলতে নিজের পক্ষে জনসমর্থন চেয়ে ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে উপস্থিত হচ্ছেন তিনি। জনদরদী এই নেতা তাকে জয়যুক্ত করতে দোয়া চাচ্ছেন নাগরিকদের কাছে।
তিনি বলেন, ‘পৌরসভা নাগরিকদের সেবা দানের লক্ষেই প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে, আমি নির্বাচিত হলে নাগরিক সমস্যাগুলো চিহ্নিত করেই দ্রুততম সময়ে সেগুলোর সমাধান করতে কাজ করবো’।
পৌর এলাকার নাগরিকদের উন্নয়নে আমি সকলকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে চাই, বিশেষ করে রাস্তা, ড্রেনেজ লাইনসহ গুরুত্বপুর্ণ সেবাখাতে আমি ভুমিকা রাখবো, নাগরিকরা যাতে ভোগান্তিতে না থাকেন সেদিকে আমার বিশেষ খেয়াল থাকবে’। একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে এলাকার সাধারণ মানুষের উন্নয়নে যতোটা সম্ভব কাজ করে যাওয়া, সাধারণ মানুষের ভালোবাসাই আমার কাছে বড়’।
তার পথসভার বক্তৃতায় তিনি জনগণের কাছে তুলে ধরে বলছেনÑ ‘আমি এবং আমরা দেখেছি বিগত দিনগুলোতে কিছু নির্দিষ্ট এলাকায় উন্নয়ন হয়েছে, তাও ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের মধ্য দিয়ে। কিন্তু নাগরিকরা চান সুষম উন্নয়ন, যেখানে পৌর নাগরিকদের ভোগান্তি সেখানে পৌর ট্যাক্স আরো বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে, আমি নির্বাচিত হলে সে টেক্সের পরিমাণ কমিয়ে আনবো। কক্সবাজার পৌর এলাকার নাগরিকরা যেভাবে সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারেন সেভাবে তাদের পরামর্শ অনুযায়ীই আমার কার্যক্রম পরিচালনা করবো। একটি সুন্দর ও উন্নত পৌরসভা গঠনে নাগরিকদের মতামতের ভিত্তিতেই আমি কাজ করতে চাই। এজন্যে আমি তাদের দোয়া ও ভালোবাসা চাই, পর্যটনবান্ধব এ শহরে আমি তাদেরই একজন হয়ে সেবা করতে চাই, শাসক হিসেবে নয়, আমি জনতার সেবক হয়ে থাকতে চাই, এটাই প্রত্যাশা।
কক্সবাজার পৌর শহরটা দুর্বিষহ যানজট, নর্দমা উপচে পড়ে নোংরা পানি, বৈদ্যুতিক খুঁটিতে বাল¡ নেই, রাস্তার পাশে আবর্জনার স্তুপে পরিণত। তবে সচেতন ভোটাররা এবার ভোট প্রদানে অত্যন্ত বিচক্ষণতার পরিচয় দেবেন বলে আমি মনে করি। তিনি ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, উন্নয়ন বঞ্চিত কক্সবাজার শহরের উন্নয়ন এবং নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধির জন্য তার উন্নয়ন ইস্যুর মধ্যে রয়েছে গরীব ও মেহনতি মানুষের জন্য চিকিৎসা সেবা প্রদান, সকল ওয়ার্ডের ড্রেন, স্যানিটেশন, বিশুদ্ধ পানি ও লাইটিং ব্যবস্থা শতভাগ নিশ্চিত করা, গরীব-দুঃখী মানুষের সন্তানদের পড়াশুনার জন্য একটি আধুনিক পৌর বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করা, বিনোদনের জন্য আধুনিক পার্ক প্রতিষ্ঠা করা, যান চলাচলে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনে যানজট মুক্ত শহর গড়ে তোলা। পর্যটন শহর কক্সবাজারকে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী ও মাদক মুক্ত করাসহ সকল ক্ষেত্রে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় করে অন্যায় অপরাধ কঠোরভাবে দমন করা হবে। তিনি নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধিতে প্রতিটি ওয়ার্ডে কাজ করবেন বলে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
রুহুল আমিন সিকদার আরো বলেন, আমি নির্বাচিত হলে শহরে কোন বিশৃংখলা হতে দেয়া হবে না, পৌরসভার আয় বৃদ্ধি করে নাগরিক সেবা এবং কক্সবাজার পৌরসভা উন্নয়নের মাধ্যমে ঢেলে সাজাতে এবং তা বাস্তবায়নে আমি প্রার্থী হয়েছি। শহরের প্রধান প্রধান সড়কের পাশে ফলজ, বনজ ও ওষুধী গাছ লাগিয়ে দুষণমুক্ত পরিবেশ গড়ে তোলা হবে। তিনি বলেন ভবিষ্যতে পৌর এলাকার সকল রাস্তাঘাট, সংস্কার নির্মাণ, পুনঃ নির্মাণসহ কাঁচা রাস্তা পাকাকরণ। নির্মাণ করা হবে আধুনিক পৌর কমিউনিটি সেন্টার। শহরের আয়তন হিসেবে পরিচ্ছন্নকর্মী কম। তাদের সংখ্যা বাড়িয়ে এবং পর্যাপ্ত যানবাহন দিয়ে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করে কক্সবাজার পৌরসভাকে পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে। তিনি বলেন, পৌরসভার সার্বিক কর্মকা- ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জনগণের সামনে উপস্থাপন করা হবে। নেয়া হবে সকল পরামর্শ। তিনি সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ এবং আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি মোতায়েনের দাবি জানান। তিনি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী বলে ভোটারদের উৎসাহ-উদ্দীপনা থেকে বুঝতে পেরেছেন। তিনি কক্সবাজার পৌরসভার সকল ভোটারদের কাছে লাঙ্গল প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেছেন।

cbn
কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

চট্টগ্রামে কাভার্ড ভ্যান চাপায় কলেজছাত্রীর মৃত্যু

২৭ ফেব্রুয়ারি বন্ধ হচ্ছে ৭ দিনের নিচের নেট প্যাকেজ

পেঁপে চাষে ভাগ্য বদল!

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে চলছে চাঁন্দেরঘোনা প্রাথমিক বিদ্যালয়

পেকুয়ায় পুকুরে পড়ে দুই সন্তানের জননীর মৃত্যু

উচ্ছেদ আতঙ্কে পশ্চিম বাহারছড়ার ৫০০ পরিবার

পেকুয়ার চেয়ারম্যান ওয়াসিমসহ ৭জন কারাগারে

জীবনে সফল হতে চান? আজ থেকেই পবিত্র কোরআনের চার পরামর্শ মেনে চলুন

প্রাথমিক-ইবতেদায়ির বৃত্তির ফল মার্চের প্রথম সপ্তাহে

আইসিসির নতুন প্রধান নির্বাহী ভারতীয় মানু সনি

জামায়াতের মনোযোগ সংগঠনে

কী ঘটতে যাচ্ছে ব্রিটেনে?

বদলে গেছে ফারজানা ব্রাউনিয়ার জীবন

আত্মসমর্পণ করতে যাচ্ছে বদির ভাই ও স্বজনেরা

হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় দারুল আরক্বমের দুই ছাত্রের কৃতিত্ব

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হলেন সালমান এফ রহমান

রাখাইনে আবারো সঙ্ঘাতের শঙ্কা, জাতিসঙ্ঘ দূতের সফর স্থগিত

কী হচ্ছে তাবলীগ জামাতের অভ্যন্তরে? সমস্যার সমাধান ভারতে?

সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর আর নেই