মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে স্বপ্নের শহর গড়ে তুলতে চাই : আইরিন

আব্দু শুক্কুর ॥
‘আমি সাধারণের একজন, পরিচয় সবার আগে আমি মানুষ, যেখানে সকল ধর্মের মানুষের সম্মিলনী-সেখানেই থাকতে চাই, মানুষের জন্য মানুষের মাঝে মিশে যেতে পারার আনন্দ আমি উপভোগ করি।
প্রত্যেক ধর্মের প্রত্যেক মানুষের কিছু স্বপ্ন আছে, তারা চায় স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিক, স্বপ্ন পুরণে তাই মানুষ ছুটে বেড়ায়, আমার শহরের মানুষেরাও স্বপ্ন দেখে, তারাও চায় ছোট ছোট স্বপ্নগুলোর বাস্তবায়ন হোক, শহরটা সুন্দর হোক, একজন আইরিন সে স্বপ্নটাই দেখেছিলেন, রাতের আঁধারে দরিদ্রদের দুয়ারে একাই চালের বস্তা হাতে তিনি দাঁড়িয়েছিলেন, বৃষ্টির দিনে পরিচ্ছন্নকর্মীর মাথায় ছাতা ধরে দাঁড়িয়ে থাকতেন তিনি, চেয়েছিলেন শহরটা স্বপ্নের মতো সুন্দর হোক, শহরের মানুষের দু:খগুলো হারিয়ে যাক, আমি রেবেকা সুলতানা আইরিনের স্বপ্নের শহর তথা ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চাই, এটাই প্রতিজ্ঞা’।
তিনি বলেন ‘আপামর জনগণের সেবার জন্য পৌরসভা সৃষ্টি হয়েছে, তারা ভোট দিয়ে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করেন তাদের কথামতো কাজ করে দেয়ার জন্য, কাজেই আমি নির্বাচিত হওয়া মানে আমি তাদের সেবক হিসেবে দায়িত্ব নেয়া, জনগণ যেভাবে চাইবেন পৌরসভার কাজ হচ্ছে সেভাবেই কাজ করে দেখানো, পৌরসভা হবে সকল নাগরিকের ও সব ধর্মের মানুষের দাবি আদায়ের জায়গা, যেখানে তারা তাদের সমস্যার কথাগুলো বলতে পারেন এবং আমার কাজ হবে নাগরিক সমস্যার সমাধান করা’।
বিভিন্ন পথসভায় রেবেকা সুলতানা আইরিন বলেন, ‘মানুষ আজকাল ততো বোকা না যে আপনি তাদেরকে যা খুশি আশ্বাস দিবেন আর তারা তা শুনে আপনাকে বাহবা দিবে। সাধারণ মানুষ জানেন যে নির্বাচনে যারা আসেন তাদের অধিকাংশকেই কাজের বেলায় খুঁজে পাওয়া যায়না, তবে প্রকৃতপক্ষেই যারা মানুষের সাথে থেকে তাদের উন্নয়নে কাজ করতে চান তাদের কাজের মাধ্যমেই মানুষ তাদেরকে মনে রাখেন। আমি নির্বাচিত হলে ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডকে শান্তির এলাকা হিসেবে গড়ে তুলবো এবং পৌরসভা হবে নাগরিকবান্ধব। অতীতে যারা জনগণের আমানত নিয়ে নিজের আখের গুছিয়েছে, অধিকাংশ উন্নয়নমূলক কর্মকা- শেষ করেননি সেগুলোই আগে সমাপ্ত করবো। পাশাপাশি নাগরিকদের প্রত্যাশা পুরণে নতুন নতুন কাজগুলোতে হাত দেবো। পৌরসভা যেহেতু জনগনের তারাই বলে দিবেন কোন কাজটি আমাকে করতে হবে। তাদের কথাই আমার জন্য নির্দেশ হিসেবে গ্রহণ করবো’।
যারা আমাকে আপন করে বুকে টেনে নিচ্ছে আমি কি করে হাজার হাজার ভালোবাসার মানুষদের কাছ থেকে দুরে সরে যাবো? দিন মজুর- শ্রমিক আর নানা পেশার মানুষরা যখন আমার মাঝে একজন উন্নয়নের ফেরিওয়ালাকে খুঁজে পাওয়ার স্বপ্ন দেখেনÑসেখানে আমি কি করে তাদের স্বপ্ন ভাঙ্গার সাহস করি? আমি ও আমার পরিবার এই শহরের তথা ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের মানুষদের কাছে ছুটে এসেছি তাদের ভালোবাসা চেয়ে নিতে, কখনো তাদের স্বপ্ন ভাঙতে নয়, আমি এই শহরেই বাকিটা জীবন কাটাতে চাই অসহায়, নির্যাতিত ও শ্রমজীবীদের স্বজন হয়ে।’
দলের হয়ে লড়ছেন, পৌরসভায় কি তাহলে দলের নেতাদের জন্য আলাদা সুবিধা থাকবে?
আমি সাধারণ জনগণের সেবা নিশ্চিত করার জন্য পৌরসভায় নাগরিকরা আসবেন এবং তাদের কোন কাজ কিভাবে করতে হবে সেটির বাস্তবায়ন করতে পরামর্শ দেবেন, আমি তাদের একজন সেবক হিসেবে সকলের সহযোগিতায় সে কাজগুলোর বাস্তবায়ন করবো।’
তিনি দ্ব্যর্থহীন ভাষায় আরো বলেন, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের মতো ঘটনা বন্ধ করবো। পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পড়–য়া ছাত্রীদের নানাভাবে উত্যক্ত দূরীকরণ, বখাটেদের আইনের আওতায় আনতে সর্বোচ্চ কাজ করবো। শহরে ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের জনগণ যদি আমাকে আনারস প্রতীকে তাদের প্রতিনিধি হিসেবে পৌরসভার চেয়ারে বসতে দেন তাহলে এই সমস্যার সমাধান করতে নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে কাজ করবো, কারণ নারীরা মায়ের জাতি, আমার মায়েরা যদি বিপদের মধ্যেই দিন কাটাতে হয় তাহলে জনগণের সাথে প্রতারণার শামিল হবে। যদি না আমরা তাদের ভোট নিয়ে তাদের পাশে না থাকি।
আপামর জনতা আমাকে ভালোবেসে আমাকে মহিরা কাউন্সিলর পদে দাঁড় করিয়েছেন। গরিব-দু:খী মানুষের প্রিয়জন হতে পেরেছি সেটা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া, নির্বাচনে বিভিন্ন জায়গায় গণসংযোগ করতে গিয়ে জনগণই তাদের ভালোবাসার প্রমাণ দিচ্ছেন। আমি সম্মানিত কক্সবাজার পৌরসভার ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের ভোটারদের কাছে আকুল আবেদন জানাচ্ছি আপনাদের সেবক হিসেবে আমৃত্যু থাকার জন্য ২৫ জুলাই আনারস প্রতীকে ভোট প্রদান করে আমাকে নির্বাচিত করুন। এই ঋণ কখনো শোধ করতে পারবো না, পারার কথাও নয়।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

২৩ সেপ্টেম্বর কর্ণফুলীতে আসছেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

কচ্ছপিয়াতে আবারও বজ্রপাতে ১ মহিলা আহত

ঈদগাঁওতে চাঁন্দের গাড়ির হেলফার নিহত , চালক গুরুতর আহত

ধর্ষণের শিকার নারীর গর্ভের সন্তানের বিধান কী?

মালয়েশিয়ায় ভেজাল মদ খেয়ে বাংলাদেশিসহ ১৫ জনের মৃত্যু

মধু খেলেই ৭ জটিল সমস্যার সমাধান

মুসলমান মেয়েদের হাত মেলানো উচিত না : পপি

নাইক্ষ্যংছড়িতে সেরা শিক্ষক বুলবুল আক্তার

পেকুয়া সড়ক দুর্ঘটনা : চালকের আসনে ছিল হেলপার , নিহত -১

কেঁওচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে সাপে কাটা ৩৬ রোগীর চিকিৎসা

পেকুয়ায় যাত্রীবাহী বাস খাদে, নিহত-১ আহত-২

বৃহত্তর ঐক্যের বড় বাধা বিএনপিতেই!

আল্লাহর বন্ধু হবেন যেভাবে

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আইসিসির তদন্ত শুরু

‘যৌনতায় অপটু’ ট্রাম্প

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে হুমকির মুখে কক্সবাজারের জীববৈচিত্র্য

প্রাথমিক শিক্ষা শক্তিশালীকরণ

পেকুয়া বড়ভাইকে কুপিয়ে নগদ টাকা লুটে নিলো ছোটভাই

পেকুয়ায় ইয়াবা সহ যুবক আটক