জলেশ্বরীর জন্যে

মোহাম্মদ আলম চৌধুরী

প্রিয় জলেশ্বরী,

কেমন আছ? তোমার চিঠির উত্তর দিতে দেরী হল। গাল ফুলিয়ে না খেয়ে বসে থেকো না আবার। আমি কী নিয়ে ভাবছি তা তো ভালো করেই জানো। পৃথিবী আমাকে মনে রাখার মতো কিছু করতে হবে। আমাকে আরও সহায়তা কর, যা আমি বরাবরই পাই। ঐ-ভদ্রলোকের জন্য একটি চিঠি পোস্ট করেছি। সাক্ষাতে তোমাকে জানাবো।

প্লেটোর সাথে আমার সাক্ষাৎ হয়। কথোপকথনে মেলে জীবনজিজ্ঞাসা। আমি আবার ফিরে আসি জীবনানন্দ দাশের ‘মহাপৃথিবীতে’। পথ আগলে রাখে স্পিনোজা। রাতগুলো ফিরে যায়- তারার আলোয়। পেছনে ফিরে দেখি- রুশো আমাকে ডাকছে। এ-সপ্তাহে আমার হাতে কোন সময় নাই। লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি, মাইকেল অ্যাঞ্জেলো, রাফায়েল- এর সাথে বৈঠক আছে। পেত্রার্ক মহোদয়ও দেখা করতে বলেছেন। এর মধ্যেই কোন একফাঁকে ডেভিড হিউম এর সাথেও একটু দেখা করব। তাঁর ‘এ ট্রিটিজ অব হিউম্যাননেচার’- বইটি অসাধারণ হয়েছে, সে-কথাটিও বলব; এবারের বৈঠকে।

দস্তয়েভস্কি, নিকোলাই গোগল, তলস্তয়, নিকোলাই অস্ত্রভস্কি, গোর্কী, আন্তন চেখভ অসম্ভব ব্যস্ত করে রাখে আমাকে। তুমি কিন্তু এ-সবকে মুশকিল ভেবো না। শুধু মনে রাখবে এ-ফল কখনও বিফলে যাবে না। নাদেজদা ক্রুপস্কায়ার সাথে পুরো একদিনের বৈঠক আছে। সাথে তোমাকে নিয়ে যেতে পারলে ভালো হতো। লু স্যুন এর বিষয়টি আমি ঐ-বৈঠকেই বলবো।

তোমার পঠন-পাঠন কেমন চলছে? আহমদ ছফার ‘পুষ্প, বৃক্ষ এবং বিহঙ্গ পুরাণ’- পাঠ শেষ করেছো শুনে খুবই প্রীত হয়েছি। জীবনবোধের এমন সাবলীল উপলব্ধির প্রকাশ আমাকে বিস্মিত করেছে। শোন, শেখ সাদীর ‘গুলিস্তা’ পাঠ কি শেষ হয়েছে? এবার তাহলে তোমাকে ওমর খৈয়ামের দরবারে নিয়ে যাবো। অরুন্ধতী রায়ের ‘অ্যালজেব্রা অব ইনফিনিট জাস্টিস’ বইটি বুকসেলফের তৃতীয় তাকে আছে। আমি এখন মশররফ আলী বৈদ্য আর মুকুন্দ সাধুর তাবিজের মতো বুকে ঝুলিয়ে রাখি- পুশকিন আর মায়াকোভস্কির কবিতা। ভুল করে ভুলে গেলে তোমাকে আবার বলা হবে না- আদতে, আমি তো বাস করি জীবনানন্দের বুনো হাঁসের মতো।

আমি প্রতিনিয়ত পিষ্ট হয়- নিষ্টুর ট্রামের মায়াবী আদরে।

পৃথিবীর কতো বড়ো দজ্জাল ফিরে গেছে আমাকে খুন করতে এসে। তা তো তোমাকে বলেছি। ঐ-লোকটাকেও বলেছি, ‘তুমি কে তরবারী নিয়ে ঘুরো? শোন-ঘাতকের পুত! আমাকে মারা সহজ নয়।’ কারণ, আমার মা বলেছেন, “আমি ভালো ছেলে। ভালো মানুষ।” বুলেটপ্রুফ জড়িয়ে আলম হাঁটে না। মা আর মানুষের ভালোবাসায় জড়ানো এ-দেহ, ছুঁতে পারবে না কেহ।

আমি কে?- সমুদ্রকে জিজ্ঞেস করো! একবার আমাকে কাঁদাতে এসে নিজেই কেঁদে ফিরে গেছে। অভিশাপ আমি দিইনি, আমার ছাত্রদের ভালোবাসার কসম; একফোটা চোখের জল শুধু ফেলেছিলাম। তারপর থেকে নাকি সমুদ্র নোনাজলের আধার। আমাকে বলেছে- বরুণ দেবতা।

সমুদ্রের সাথে আমার সমস্ত আলাপ তোমাকে আমি বলেছি। যাক, তোমার গুণের প্রশংসা করলে তো তুমি লজ্জায় চোখ বন্ধ করে ফেলো। তাতে অবশ্য দুইজনেরই লাভ। জমে তখন না বলা কথার আলাপ। না বলা কথা তোমার মতো আর কেউ বুঝেছে বলে, আমার যাপিত জীবনের এ-অংশে, আর মনে হয় না। শোন:

আমার স্বপ্নগুলো আকাশের মেঘ

সমুদ্র আমাকে ডাকছে

আমি যেনো কার অপেক্ষায় আছি

গালিবের গজল শোনাবো বলে!

এ-কবিতাটির তুমি বেশ প্রশংসা করেছিলে। আমি ভেবেছিলাম- সত্যি কিছু একটা হয়েছে। এ-কেমন পুরস্কার দিয়েছ?- পৃথিবী কেঁদে ওঠেছে আর থমকে দাঁড়িয়েছে- সমুদ্রের ঢেউ। বাদশাহ শাহজাহান এ-রকম ভালোবাসা পেলে বানাতো সহ¯্র তাজমহল। আমি যা তোমাকে দিয়েছি- সামলে রেখো।

ইতি

তোমার সমুদ্রযুবক।

কক্সবাজার নিউজ সিবিএন’এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

সর্বশেষ সংবাদ

একান্ত সাক্ষাৎকারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন অপরাধীর সাথে আপোষ নয়

প্রসঙ্গ : প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চলতি দায়িত্ব

বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের প্রায় ১শ কি.মি সড়ক চলাচলের অনুপযোগী, সেতুমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ

টেকপাড়ায় মাঠে গড়াল বৃহত্তর গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্টের ৫ম আসর

মাতারবাড়ী কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনে গেলেন বিভাগীয় কমিশনার

নতুন বাহারছড়ার সেলিমের অকাল মৃত্যু: মেয়র মুজিবসহ পৌর পরিষদের শোক

জেলা আ’ লীগের জরুরী সভা

মাদক কারবারীদের বাসাবাড়ীতে সাঁড়াশি অভিযান, ইয়াবাসহ আটক ৩

সৈকতে অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় উন্নয়ন মেলা কনসার্ট

পেকুয়ায় অটোরিকশা চালককে তুলে নিয়ে মারধর

পুলিশ সুপারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ

ফেডারেশন অব কক্সবাজার ট্যুরিজম সার্ভিসেস এর সভাপতি সংবর্ধিত

কাউন্সিলর হেলাল কবিরকে বিশাল সংবর্ধনা

কলাতলীতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, দুইজনকে জরিমানা

আ. লীগের কেন্দ্রীয় টিমের জনসভায় সফল করতে জেলা শ্রমিকলীগ প্রস্তুত

মানবপাচারকারী রুস্তম আলী গ্রেফতার

দেশে গণতান্ত্রিক অধিকার নেই, পুলিশী রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে : শাহজাহান চৌধুরী

১২দিনেও খোঁজ মেলেনি মহেশখালীর ১৭ মাঝিমাল্লার

শেখ হাসিনার উন্নয়নের লিফলেট বিতরণ করলেন ড. আনসারুল করিম

কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-১০