cbn  

সংবাদদাতা: 

উখিয়া জালিয়াপালং ইউনিয়নের মাদারবনিয়াতে এক ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ২৮ জুন সকাল ১০টায় অভিযান চালিয়ে লাতু চাকমা নামে এক যুবককে আটক করেছে উখিয়া থানা পুলিশ।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন,  ধর্ষিতার পরিবার যে দিন থানাতে এসেছিল সেদিন আমি ঢাকাতে ছিলাম। তবে আমি থানাতে এসে মাদারবনিয়াতে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে খবর পেলে ধর্ষণে মুল অভিযুক্ত লাতু চাকমা নামে এক যুবককে গ্রেফতার করি। তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে তাকে কোর্টে প্রেরণ করা হবে।

এদিকে উক্ত ঘটনার ব্যাপারে উখিয়া থানা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এর আন্তরিক প্রচেষ্টায় মুল অভিযুক্ত আসামী লাতু চাকমা কে দ্রুত সময়ে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ, তার জন্য ধর্ষিতার এলাকার সর্বমহলের মানুষ এই দুই অভিভাবককে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

ধর্ষিতা ছাত্রী জানান, গত কয়েক মাস যাবত আমার বাবা একটি মামলায় কারাগারে আছে। বাবা বাড়িতে না থাকায় ২৫ জুন সোমবার রাতে বাড়ির সবাই  ঘুমিয়ে পড়ে। গভীরে রাতে ঘরের দরজার শিকল খুলে স্থানীয় চাকমা পাড়ার চোয়াইনসুর পূত্র লাতু চাকমা, কেজাইয়ংনের পূত্র মঙ্গলা চাকমা, আর রবিন চাকমার পূত্র তাইমং চাকমা তাদের ঘরে প্রবেশ করে। আর তাদের দেখে ধর্ষিতা চিৎকার করলে মঙ্গলা ও তাইমং মিলে তার মাকে বেধেঁ রাখে। তারপর লাতু চাকমা প্রথমে ধর্ষণ করে। তখন রাতে অনেক বৃষ্টি হচ্ছিল। তােই পাশের কেউ তাদের চিৎকার শুনেনি।  বৃষ্টি শেষ হলে ধর্ষিতাসহ তার তার মায়ের চিৎকার শুনে পাশের বাড়ির লোকজন এগিয়ে আসলে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •