cbn  

হারুনর রশীদ, মহেশখালী:

মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের মেহেরিয়া পাড়া এলাকায় সরকারী পুকুর লিজ নিয়ে কেটেনিয়ে গেছে লক্ষাধীক টাকার গাছ। ২৬জুন দুপুরে পুকুর লীজ গ্রহণকারী স্থানীয় নুরুল ইসলাম মেম্বার লোকজন দিয়ে গাছগুলো কেটে নিয়ে গেছে।

মহেশখালী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি)র কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে- পুকুর লীজ দিলেও গাছ গুলো লীজ দেওয়া হয়নি। উক্ত লীজ গ্রহণকারী কৌশলে পুকুরটি লীজ নিয়ে পুকুর পাড়ের গাছের দিকে লোভ দেয়। গাছের দিকে লোলুপ দৃষ্টি পড়ায়, লোভ সামলাতে না পেরে গাছগুলো কেটে পুকুরের পাড় ন্যাড়া করে দিয়েছে।

এ ব্যাপারে পুকুরের লীজ গ্রহণকারী নুরুল ইসলাম মেম্বার  বলেন-  কবর, স্থানের ঘেরা-বেড়া দেওয়ার জন্য গাছগুলো কেটে ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে। পুকুরটি সে ২০ হাজার টাকা দিয়ে লীজ নিয়েছে বলে জানান।

এ বিষয়ে গোরকঘাটা তশীলদার অফিসার কাজল কুমার শীল  বলেন, আমরা পুকুর লীজ দিয়েছি গাছ লীজ দিই নাই। এছাড়া ও গাছগুলি নাকি ব্যক্তি মালিকানাধীন। এলাকাটি পরিমাপ করে বিস্তারিত জানা যাবে।

 মহেশখালী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাসান মারুফ রাহাত বলেন, পুকুর সরকারী হলে পুকুরের পাড় নিশ্চয় সরকারী। কেটে নেওয়া গাছগুলি পুকুরে আওতায় কিনা সার্ভেয়াধারা পরিমাপ করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কেটে নেওয়া গাছগুলি পুকুরে আওতায় কিনা সার্ভেয়াধারা পরিমাপ করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, পুকুর লীজ গ্রহণকারী ব্যক্তি সরকারী সম্পদ গাছগুলি অনুমতি না নিয়ে কেটে নিয়ে গেলে, তদন্ত করে দূষি প্রমাণিত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •